বুধবার, ১০ অগাস্ট ২০২২, ০১:২৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
কোলচুরি গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মুক্তিযোদ্ধার বাড়িতে বোমা নিক্ষেপ প্রধানমন্ত্রীর সাথে পাবিপ্রবি উপাচার্য ও উপ-উপাচার্যের সৌজন্য সাক্ষাৎ সাঁথিয়ায় নকল প্রসাধনী কারখানার সন্ধান, ভ্রাম্যমান আদালতে ৬ মাসের কারাদন্ড ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষের ভারে ভারাক্রান্ত বেড়ার মাশুন্দিয়া ডিগ্রি কলেজ পাবনায় ফজিলাতুননেছা মুজিবের জন্মবার্ষিকী পালিত চাটমোহরে ট্রেনের ধাক্কায় মহিলার মৃত্যু ভারতে বসবাস, চাকুরী করেন বাংলাদেশে! কৌশলে নেন বেতন আওয়ামী লীগ সরকারের আমলে মাদ্রাসা শিক্ষা ব্যবস্থার ব্যাপক উন্নয়ন হয়েছে- এমপি প্রিন্স শেখ কামালের জন্ম বার্ষিকী, পাবনায় নানা আয়োজন সাঁথিয়ায় নারী উদ্যোক্তাদের উদ্বুদ্ধকরণ কর্মশালা অনুষ্ঠিত

জেকা বাজার অবশেষে স্থায়ীভাবে বন্ধ, পাবনার মূল হোতাদের খুঁজছে

বিশেষ প্রতিবেদক, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ২৩ নভেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

অবৈধ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান জেকা বাজারের সব কার্যক্রম ও প্রতিষ্ঠানটি স্থায়ীভাবে বন্ধ ঘোষণা করেছে জেলা প্রশাসন। বৈধ কোনো কাগজপত্র দেখাতে না পারায় তাদের এই প্রতিষ্ঠানটি স্থায়ীভাবে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। এতে দুশ্চিন্তায় পড়েছেন হাজার হাজার বিনিয়োগকারীরা। তবে পাবনার কর্মকর্তারা পুলিশী নজরদারি এড়িয়ে গা ঢাকা দিয়েছে।

সোমবার (২২ নভেম্বর) বিকেলে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক শরীফুল ইসলাম শহরের পান্না চত্বরের নান্নু টাওয়ারে জেকা বাজারের সিলগালা কার্যালয়ের সব ভেজাল পণ্য জব্দ করেন। পরে এসব পণ্য আগুনে পুড়িয়ে ধ্বংস করা হয়।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর রাজবাড়ী জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক শরিফুল ইসলাম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, জেকা বাজার নামের একটি প্রতিষ্ঠান দীর্ঘদিন ধরে এমএলএম ব্যবসা করে আসছিল, যা সম্পূর্ণভাবে অবৈধ। এ ছাড়া তারা এমএলএম ব্যবসার আড়ালে ভুয়া প্রসাধনী বিক্রি করে আসছিল। ওইসব পণ্যে বিএসটিআইয়ের কোনো অনুমোদন ছিল না। তাই জেকা বাজারে সিলগালা করে এদের সব কার্যক্রম স্থায়ীভাবে বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।

তিনি আরও বলেন, জেকা বাজারের নামে কোনো ব্যবসা চালানো যাবে না। তাদের যেসব বৈধ মসলা, ফেব্রিক্স ও ইলেট্রনিক পণ্য আছে সেগুলোর মাধ্যমে ব্যবসা তারা করতে পারবে। পরবর্তীতে কোথাও যদি তারা আবার এমএলএম ব্যবসা করে তাহলে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

জেকা বাজারের কয়েকজন পরিচালক গ্রাহকদের টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যাপারে বলেন, তাদের বর্তমানে যে সম্পদ আছে তা পর্যালোচনা করে আস্তে আস্তে গ্রাহকদের টাকা ফেরত দেবেন।

এদিকে জেকা বাজার রাজবাড়ীতে মূল অফিস করলেও এর কার্যক্রম চালায় পাবনার সুজানগর উপজেলার খলিলপুর, সাগরকান্দি, নাজিরগঞ্জ, কাশিনাথপুরসহ বিভিন্ন এলাকায়। এর মূলে ছিল আনিস মাষ্টার, রাজিব, সাইদুল বাশারসহ আরো কয়েকজন। তাদের হাত ধরেই ব্যাপক ভাবে বিস্তার ঘটে এই জেকা বাজারের। তারা কোটি কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে নেন। তারা বিভিন্ন কৌশলে গ্রাহকদের কোটি কোটি টাকা নিয়ে গা ঢাকা দিলেও পাবনার পুলিশ প্রসাশন তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিচ্ছেন না বলেও অভিযোগ রয়েছে।  তাদের অতিসত্বর আইনের আওতায় আনারও দাবী গ্রাহকদের।

প্রসঙ্গত, এর আগে গত ২ নভেম্বর ভোক্তা অধিকার অভিযান চালিয়ে ই-কমার্স ব্যবসা পরিচালনার দায়ে জেকা বাজারকে সিলগালা ও ভেজাল পণ্য বিক্রির দায়ে দুই লাখ টাকা জরিমানা করা হয়।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!