বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১১:৫৬ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
আব্দুল্লাহ-গালিব সৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের খেলায় পাবনা ইগলস জয়ী পাবনায় আদালত চত্বর থেকে সাক্ষী অপহরণ, বাধা দেয়ায় লাঞ্ছিত ৩ আইনজীবী চলনবিলে শীত উপেক্ষা করে কৃষকরা বোরো রোপণে ব্যস্ত ঈশ্বরদীতে শিশু হত্যা মামলায় এক আসামির যাবজ্জীবন চলনবিলাঞ্চলে শীতে ছিন্নমূল মানুষের দুর্ভোগ চাটমোহরে ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে দুধ ব্যবসায়ীর মৃত্যু জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে নির্বাচনী সংঘাতে এলাকাছাড়া পরিবারের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা গ্রহণের দাবিতে পাবনায় শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন পাবনায় পদ্মা নদীর বুকে সেই রাস্তা অপসারণ করলো প্রশাসন রূপপুর প্রকল্পে থামছে না চুরি, এবার ক্যাবল চুরি

ভায়নায় নৌকার র‌্যালীতে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সমর্থকদের হামলার অভিযোগ, হোন্ডা ভাংচুর, আহত ১০

পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডেস্ক
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ৯ নভেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

পাবনার সুজানগর উপজেলার ভায়না ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নৌকা প্রার্থী আমিন উদ্দিনের সমর্থনে বের হওয়া মোটর সাইকেল র‌্যালীতে স্বতন্ত্র প্রার্থী ওমর ফারুকের কর্মী সমর্থকদের হামলার অভিযোগ উঠেছে। এ সময় নৌকার কর্মী সমর্থকদের হামলায় অন্তত: ১০ জন আহত ও ১১টি মোটর সাইকেল ভাংচুর করা হয়। রাত সাড়ে ১১টার দিকে ওই ইউনিয়নের চালনা বাজারে এই ঘটনা ঘটে।

ভায়না ইউনিয়নে আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আমিন উদ্দিন বলেন, রাতে আমার কর্মী সমর্থকরা নির্বাচনী প্রচার প্রচারণার অংশ হিসেবে একটি মোটর সাইকেল শোভাযাত্র বের করেন। ইউনিয়নের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে হেমরাজপুর গ্রাম হয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী ওমর ফারুকের গ্রাম চালনা এলাকায় পৌছিলে তার লোকজন অতর্কিত ভাবে পেছনের লোকজনের উপর হামলা চালায়। এ সময় শোভাযাত্রার সামনের লোকজন এগিয়ে আসার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। স্বতন্ত্র প্রার্থীর লোকজন দেশীয় অস্ত্র ও লাঠিশোঠা নিয়ে তাদের উপর হামলা চালায়। এতে কমপক্ষে ১০ জন আহত হয়। আহতদের মধ্যে ভায়না গ্রামের বাদশা শেখের ছেলে আলতাব শেখকে মারাত্মক অবস্থায় প্রথমে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হলেও সেখান থেকে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার্ড করেন চিকিৎসকরা।

নৌকা প্রতীকের নিশ্চিত বিজয় দেখে তারা আতংকিত হয়ে নির্বাচনটিকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করছেন বলেও অভিযোগ নৌকার প্রার্থীর। তিনি প্রশাসনের প্রতি সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবী জানিয়ে এই হামলার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের দাবীও করেন।

আনারস প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সদস্য ওমর ফারুক বলেন, নৌকা প্রতীকের মোটর সাইকেল শোভাযাত্রার সময় চালনা বাজারে এসে আমার নির্বাচনী অফিস ভাংচুরের চেষ্টা করলে আমাদের লোকজন এতে বাধা দিলে তারা মোটর সাইকেল ফেলে রেখে চলে যায়। হাচেন আলীর ছেলে সবুজ, হোসেন প্রাং এর ছেলে আব্দুস ছালাম, সোহরাবে ছেলে আকমল মারাত্মক আহত হয়। এদের মধ্যে সবুজকে রাজশাহী মেডিকেলে পাঠানো হয়েছে। পরে ঘটনাস্থলে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। সকালে থানায় ও নির্বাচণ অফিসে অভিযোগ দিবো বলেও জানান তিনি।

এ বিষয়ে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব বলেন, আমাদের এলাকায় নৌকা প্রতীকের অবস্থান এমনিতেই ভালো। উপজেলা আওয়ামীলীগের এক নেতার পরামর্শে স্বতন্ত্র প্রার্থী হন ওমর ফারুক। তিনি প্রার্থী হয়েই বিভিন্ন ধরনের সন্ত্রাসী কর্মকান্ড পরিচালনা করছেন। রাতে শান্তিপূর্ণ একটি হোন্ডার‌্যালীতে অতর্কিত ভাবে হামলা চালিয়ে উত্তেজনাকর পরিস্থিতির চেষ্টা করেন। তবে তাৎক্ষনিক পুলিশে খবর দিলে পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। আমরা সবধরনের সন্ত্রাসী কর্মকান্ডের বিরুদ্ধে। অবাধ সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে আমরা কাজ করছি।

এ ব্যাপারে সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মিজানুর রহমান জানান, সংঘর্ষের খবর পেয়ে দ্রুত পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনে। তবে বড় ধরনের তেমন কোন ঝামেলা নয় এটি। তারপরেও যদি কোন পক্ষ থেকে লিখিত অভিযোগ দেন তাহলে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

Pabnamail24

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!