মঙ্গলবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০২:০০ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পাবনা-৪ উপ-নির্বাচনে গণসংযোগে স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি নির্মল রঞ্জন গুহ চাটমোহরে দুইদিন ব্যাপী ভেলা বাইচ প্রতিযোগিতা পাবনায় এইচআইভি-এইডস প্রতিরোধে লাইট হাউসের মতবিনিময় সভা সাঁথিয়ায় শালিসে ডেকে মারপিট করার অভিযোগ ইউপি চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে বেড়ায় দুই গোষ্ঠির মারামারি, আহত ৪ ঈশ্বরদীতে উপনির্বাচনের সভায় বিএনপির দু’গ্রুপে সংঘর্ষ, আহত ১৫ ‘উপনির্বাচনে কারচুপি হলে ঈশ্বরদী থেকেই সরকার পতনের আন্দোলন শুরু হবে’- আমান উল্লাহ পাবনা-৪ উপ-নির্বাচনের প্রচারণায় উপেক্ষিত স্বাস্থ্যবিধি, করোনা সংক্রমণের আশংকা পাবনা-৪ উপনির্বাচন-আসন ধরে রাখতে মরিয়া আ’লীগ, পুনরুদ্ধারের চেষ্টায় বিএনপি ভাঙ্গুড়ায় বৃক্ষ বিতরণ ও রোপণ করল ‘মানবিক ভাঙ্গুড়া’

সুজানগরে প্রতিপক্ষকে গুলি করে আনন্দে বনভোজন করার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
Pabnamail24

পাবনার সুজানগরে একটি জলাশয় ভোগদখলকে কেন্দ্র করে সৃষ্ট সংঘর্ষে প্রতিপক্ষকে গুলি করে আহত করার আনন্দে আওয়ামী লীগের একটি গ্রæপ বনভোজন করেছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। সোমবার উপজেলা ত্রিমোহনী ¯øুইচগেট এলাকায় ওই বনভোজন করা হয়।

উপজেলার রানীনগর ইউপি সদস্য রশিদুল ইসলাম রাশু জানান, উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাবের সমর্থক ওই ইউনিয়ন যুবলীগের সভাপতি শাহীনুর রহমান শাহীন দীর্ঘদিন এলাকার একটি জলাশয় জোরপূর্বক ভোগদখল করে আসছিল। সর্বশেষ গত রোববার দুপুরে সে তার লোকজন নিয়ে ওই জলাশয়ে মাছ ধরতে যায়।

এ সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহীনুজ্জামান শাহীনের সমর্থক রানীনগর ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ নেতা খাইরুল মাস্টার ও তার লোকজন তাতে বাঁধা দেয়। এতে যুবলীগ নেতা শাহীন ও তার লোকজন উত্তেজিত হয়ে খাইরুল মাস্টার ও তার লোকজনের উপর গুলি বর্ষণ করে। গুলিতে অন্তত ২০জন আহত হয়। এদের মধ্যে গুরুতর আহত অবস্থায় ১০জনকে পাবনা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আর এই আহত হওয়ার আনন্দে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাবের নেতৃত্বে তার সমর্থকেরা মহিষ জবাই করে ওই ¯েøাইচগেট এলাকায় বনভোজন ও আনন্দ উৎসব করছে বলে খাইরুল অভিযোগ করেন।

তবে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আব্দুল ওহাব বলেন, প্রতিপক্ষ আহত হওয়ার আনন্দে কোন বনভোজন আয়োজন করি নাই। এটি আমার সমর্থকদের পূর্ব নির্ধারিত বনভোজন। এদিকে করোনা মহামারির মধ্যে স্বাস্থ্য বিধি উপেক্ষা করে বনভোজন করায় এলাকার সচেতন মহলে ব্যাপক সমালোচনাা ঝড় উঠেছে। সচেতন মহল বলছে একদিকে করোনা অন্যদিকে একই দলের লোক গুলিবিদ্ধ হয়ে হাসপাতালে থাকা অবস্থায় বনভোজন করা ঠিক হয়নি।

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!