শুক্রবার, ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ১২:১৩ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :
পাবিপ্রবিতে শহিদ মিনারে ফুল দিতে বাধা, দু’পক্ষের হাতাহাতি ভাষা আন্দোলনের চেতনাকে ধারণ করে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে রেলে সস্তায় পরিবহণের সুযোগ দেয়া হবে-পাবনায় রেলমন্ত্রী পাস্ট ডিরেক্ট রিক্রুটেড অফিসার্স এসোসিয়েশনের আত্মপ্রকাশ সনি বিশ্বাস এফবিসিসিআই‘র স্ট্যান্ডিং কমিটির চেয়ারম্যান নির্বাচিত পাবিপ্রবিতে জাতীয় গ্রন্থাগার দিবস পালিত, ডরমিটরি উদ্বোধন চাটমোহরে প্রতিপক্ষের মারধরে এক ব্যাক্তি নিহত, বাবা-ছেলে আটক স্কয়ারের ফ্যামিলী স্পোর্টস ডে পালিত প্রবাসীর স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা চাটমোহরে প্রবাসীর স্ত্রী ও শিশু সন্তানকে শ্বাসরোধে হত্যা

সাঁথিয়ায় ট্রান্সফর্মার চোরের ঝলছে গেছে শরীর, ১৫ দিনেও হয়নি মামলা

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • আপডেট টাইম : রবিবার, ২৭ আগস্ট, ২০২৩

পাবনার সাঁথিয়ায় পল্লী বিদ্যুতের ট্রান্সফর্মার চুরি করতে গিয়ে শরীর ঝলছে গেছে এক চোরের। ১২ আগস্ট রাতে পাবনার সাঁথিয়া উপজেলার গোপীনাথপুর বাজারের পাশে এ ঘটনা ঘটে।ঘটনার দুই সপ্তাহ পার হলেও হয়নি কোন মামলা কোন আসামিই গ্রেফতার হয়নি।

বিদ্যুতের ট্রান্সফরমার চুরি করার সময় ট্রান্সফরমারের গরম তেলে চোরের শরীর ঝলসে গেছে। আরো ২ চোর বিদুৎ এর খুঁটির নিচে থাকায় তাদের শরীরে কোন ক্ষতি হয়নি।

জানা গেছে, ওই আহত ব্যক্তিকে গোপনে চোরচক্র প্রথমে বেড়া হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখান থেকে নিয়ে যাওয়া হয় পাবনা জেনারেল হাসপাতালে। পরে আশঙ্কাজনক অবস্থায় তাকে ঢাকায় নিয়ে যাওয়া হয়। এখন পুলিশের চোখ ফাঁকি দিতে আহত রোগীকে অজ্ঞাত স্থানে সরিয়ে ফেলা হয়েছে।

গত ১৫ আগস্ট এই মর্মে সাতানিরচরের মৃত ইউসুফ প্রাং এর ছেলে মো: সাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে সাঁথিয়া থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেন।
অভিযুক্ত আহত ব্যক্তির নাম আব্দুর রহমান। সে বেড়া উপজেলার হাটুরিয়া জগন্নাথপুরের আঃ রাজ্জাকের ছেলে। আব্দুর রহমান এর শ্বশুর মুন্নাফ মন্ডলের বাড়ি সাঁথিয়ার সরকারপাড়া ভবানিপুর।

ট্রান্সফরমার এর নিচে মাঠের মধ্যে (ঘটনাস্থলে) দুই জোড়া স্যান্ডেল পাওয়া গেছে। আহত আব্দুর রহমানকে রাতেই একটি ভ্যান রিক্সা যোগে বেড়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। যে ভ্যানে গরম তেলে ঝলসে যাওয়া আব্দুর রহমানকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল তাকেও সনাক্ত করা গেছে।

চুরি প্রচেষ্টার সঙ্গে জড়িত আরও দুইজনের নাম পাওয়া গেছে। তারা হলো ভবানীপুর সরকারপাড়ার সংলগ্ন গোপীনাথপুর উত্তর পাড়ার নিয়ামত আলীর ছেলে আকরাম হোসেন ও আবু হানিফের ছেলে ফজু।এলাকাবাসীর সাথে কথা বলে জানা যায়, আব্দুর রহমান পেশাদার চোর।সে কিছু দিন আগেও ভবানীপুর কাশু মন্ডের বাড়ির পাশে থাকা ট্রান্সফর্মার চুরি করার সময় লোকজন টের পাওয়ায় পালিয়ে গিয়েছিল।

এ ব্যাপারে সাঁথিয়া থানার ওসি রফিকুল ইসলাম বলেন, জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। তবে স্থানীয়দের অভিযোগ, পুলিশের তৎপরতা রহস্যজনক। ঘটনার দুই সপ্তাহ পার হলেও হয়নি কোন মামলা কোন আসামিই গ্রেফতার হয়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..