রবিবার, ০১ নভেম্বর ২০২০, ১২:৪১ পূর্বাহ্ন

ভাঙ্গুড়ায় নির্বাচনী প্রচার কার্যালয় ভাংচুর

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত রবিবার, ১১ অক্টোবর, ২০২০
Pabnamail24

পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার সদর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রতীক বরাদ্দের পর থেকেই ব্যাপক প্রচার প্রচারণায় নেমেছেন আওয়ামী লীগ ও বিএনপিসহ স্বতন্ত্র প্রার্থীরা। আগামী ২০ অক্টোবর এই ইউনিয়নে ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে। সাধারণ ভোটারদের অভিমত, নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে চারজন প্রার্থী হলেও মূলত আওয়ামী লীগে বেলাল হোসেন ও বিএনপি সমর্থিত প্রার্থী বিদ্যুৎ এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম ফারুকের ত্রিমুখী লড়াই হবে। তাই প্রচারণার পর থেকেই প্রার্থী ও কর্মী-সমর্থকদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে। এ অবস্থায় শনিবার রাতে ইউনিয়নের চরভাঙ্গুড়া গ্রামে নিজেদের নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থী বেলাল হোসেন খান (নৌকা) ও স্বতন্ত্র প্রার্থী (ঘোড়া) গোলাম ফারুক টুকুন। বেলাল হোসেন খান চরভাঙ্গুড়া গ্রামের স্থায়ী বাসিন্দা।

এ ঘটনায় ভাঙ্গুড়া থানা পুলিশ ভাঙচুর হওয়া নির্বাচনী কার্যালয় পরিদর্শন করেছেন। তবে ঘটনার পর থেকেই ওই এলাকায় দুই পক্ষের কর্মীদের মধ্যে চরম উত্তেজনা বিরাজ করছে।

সূত্র জানায়, শনিবার রাত দশটার দিকে চরভাঙ্গুড়া গ্রামের খাঁ পাড়া ও ঘোষপাড়ায় নৌকা প্রতীকের নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করে দুষ্কৃতকারীরা। এর কিছুক্ষণ পর একই এলাকায় স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম ফারুক টুকুনের নির্বাচনী কার্যালয়ও ভাঙচুর করা হয়। তবে নৌকার প্রার্থী বেলাল হোসেন খান নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের ব্যাপারে সরাসরি কারো বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ তুলছেন না। কিন্তু স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম ফারুক টুকুনের অভিযোগ, বেলাল হোসেনের লোকজন প্রথমে ঘোড়া মার্কার নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করে। পরে ঘটনা ধামাচাপা দিতে নিজেরাই নৌকা মার্কার নির্বাচনী কার্যালয় ভাঙচুর করে। চরভাঙ্গুড়া গ্রাম বেলাল হোসেন খানের নিজস্ব গ্রাম হওয়ায় তার কর্মীদের হুমকিতে ঘোড়া মার্কার কর্মীরা পালিয়ে বেড়াচ্ছেন বলেও অভিযোগ করেন গোলাম ফারুক টুকুন। তিনি এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া থানায় লিখিত অভিযোগ করেছেন।

এদিকে নৌকা মার্কার প্রার্থী বেলাল হোসেন খান জানান, নৌকা মার্কার নির্বাচনী অফিসের পাশেই ঘোড়া মার্কার নির্বাচনী অফিস রয়েছে। পরে জানতে পারি দুই অফিসেই কর্মীরা চেয়ার ভাঙচুর হয়েছে। নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের ঘটনা একেবারেই অনাকাঙ্ক্ষিত। আমরা নিজেরাই বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করছি। তবে এ ব্যাপারে আমার কারও বিরুদ্ধে কোনো অভিযোগ নেই।

তবে স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম ফারুক টুকুন বলেন, নির্বাচনে পরাজয়ের কথা ভেবে আমার কর্মীদেরকে হুমকি-ধামকি দিয়ে এলাকায় প্রচার প্রচারণা চালাতে দিচ্ছে না বেলাল হোসেন খান। এখন নৌকার প্রার্থী বেলাল হোসেন খান নিজের গ্রামের নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের নাটক করে আমার কর্মীদেরকে ভয়-ভীতি দেখিয়ে নিজের পক্ষে নেয়ার চেষ্টা করছে। আমি এর প্রতিকার চেয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ করেছি।

এ বিষয়ে কথা বলতে ভাঙ্গুড়া থানার ওসি মোহাম্মদ আনোয়ার হোসেনকে একাধিক বার ফোন দিলেও তিনি রিসিভ করেননি।

তবে অভিযোগ প্রাপ্তির কথা স্বীকার করে ভাঙ্গুড়া থানার ডিউটি অফিসার এসআই আবুল কালাম বলেন, স্বতন্ত্র প্রার্থী গোলাম ফারুক টুকুন তার নির্বাচনী কার্যালয় ভাংচুরের বিষয়ে থানায় লিখিত অভিযোগ দিতে এসেছেন। থানা প্রশাসন ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আলোচনা করে এ বিষয়ে পদক্ষেপ গ্রহণ করবেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!