শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১১:১১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
শ্রদ্ধা ভালোবাসায় সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন পাবনায় শারদীয় দুর্গোৎসব উপেলক্ষ্যে মর্জিনা লতিফ ট্রাস্টের বস্ত্র বিতরণ একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন পাবনায় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ইসলামী আন্দোলনের নেতার ঈশ্বরদীতে গৃহবধূকে ছুরিকাঘাতে হত্যা রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে আবারও ডেঙ্গু আক্রান্ত শ্রমিকের মৃত্যু ফরিদপুরে মন্দিরের জায়গা দখল করে মেয়রের কোটি টাকার বাণিজ্য মেলা! উৎসবমুখর পরিবেশে পাবিপ্রবিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন প্রতারণার অভিযোগ, সুজানগরে আ. লীগের নেতা উজ্জ্বলকে অবরুদ্ধ করে টাকা ফেরতের দাবী ও আলোর পথযাত্রী, এখানে থেমো না!

ভাঙ্গুড়ায় নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কোচিং সেন্টার

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত সোমবার, ১৯ সেপ্টেম্বর, ২০২২
Pabnamail24

চলতি এসএসসি ও সমমান পরীক্ষায় প্রশ্ন ফাঁস ঠেকাতে দেশের সকল ধরণের কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশনা থাকলেও পাবনার ভাঙ্গুড়ায় সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে কোচিং সেন্টার চালানোর অভিযোগ পাওয়া গেছে। রোববার (১৮সেপ্টেম্বর) ভাঙ্গুড়া পৌর সভার বাছের মেমোরিয়াল একাডেমী ও মিনা নজরুল কোচিং সেন্টারে ক্লাস নিতে দেখা যায়। প্রতিষ্ঠানের গেটের বাইরে থেকে দরজা বন্ধ। ভিতরের শ্রেণী কক্ষগুলোতে ক্লাস নিচ্ছেন শিক্ষকেরা।

কোচিং সেন্টার মালিকরা বলছেন, উপজেলা প্রশাসনের কোনো নির্দেশনা না পাওয়ায় তারা কোচিং কার্যক্রম চালাচ্ছেন। তবে প্রশাসন বলছেন, নির্দেশনা অমান্য কারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এদিকে প্রশাসনের গাফিলতিকে দায়ী করছেন অনেকেই।

সরকারি নির্দেশে বলা হয়েছে, এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষায় প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধে চলতি মাসের ১২ সেপ্টেম্বর থেকে আগামী ২ অক্টোবর পর্যন্ত দেশের সব ধরণের কোচিং সেন্টার বন্ধ রাখার নির্দেশ দিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রণালয়। কিন্তু সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ভাঙ্গুড়ার বাছের মেমোরিয়াল একাডেমীর কর্তৃপক্ষ প্রতিষ্ঠান খোলা রেখেই কার্যক্রম চাচ্ছিলেন। রোববার দুপুরে সংবাদকর্মীরা সেখানে উপস্থিত হলে কিছুক্ষণ পর উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার প্রতিষ্ঠানের প্রধান শিক্ষককে দ্রুত শিক্ষার্থীদের ছুটি দিতে বলেন। পরবর্তীতে শিক্ষা অফিসার ওই প্রধান শিক্ষককে উপজেলা প্রশাসনের সাথে দেখা করতেও বলেন।

এ বিষয়ে বাছের মেমোরিয়াল একাডেমীর প্রধান শিক্ষক মোখলেছুর রহমান বলেন, পরীক্ষা চলাকালে স্কুল বন্ধ রাখার বিষয়ে উপজেলা প্রশাসনের কোনো নির্দেশনাও আমরা পাইনি। তাই প্রতিষ্ঠান খোলা রেখেছি। তবে মিনা নজরুল স্কুলের প্রধান শিক্ষকের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি সাংবাদিক পরিচয় পেয়েই ফোনের লাইন কেটে দিয়ে ফোনটি বন্ধ করে দেন।

এ বিষয়ে উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার সাইফুল আলম বলেন, সেখানে কোচিং ক্লাস চলছে জানতে পেরে আমি বাছের মেমোরিয়ালে গিয়েছিলাম এবং ক্লাস বন্ধ করতে বলেছি। পূর্বে কেন সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী তাদের চিঠি দেওয়া হয়নি এমন প্রশ্নের তিনি এড়িয়ে যান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মোহাম্মদ নাহিদ হাসান খান বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী সকল কোচিং সেন্টার ও ফটোকপির দোকান বন্ধ রাখতে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। তবে নির্দেশনা অমান্য কারীদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও তিনি জানান।

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!