শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১২:২৩ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
আব্দুল্লাহ-গালিব সৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টে নিমফুল রিফাত সৃতি সংঘের ২ উইকেটে জয় পাবিপ্রবি ভিসির বিরুদ্ধে নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ, গনিত বিভাগের চেয়ারম্যান লাঞ্ছিত সাঁথিয়ায় দেবরের ঘরে ভাবির বিয়ের দাবিতে আমরণ অনশন আব্দুল্লাহ-গালিব সৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের খেলায় পাবনা ইগলস জয়ী পাবনায় আদালত চত্বর থেকে সাক্ষী অপহরণ, বাধা দেয়ায় লাঞ্ছিত ৩ আইনজীবী চলনবিলে শীত উপেক্ষা করে কৃষকরা বোরো রোপণে ব্যস্ত ঈশ্বরদীতে শিশু হত্যা মামলায় এক আসামির যাবজ্জীবন চলনবিলাঞ্চলে শীতে ছিন্নমূল মানুষের দুর্ভোগ চাটমোহরে ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে দুধ ব্যবসায়ীর মৃত্যু জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে নির্বাচনী সংঘাতে এলাকাছাড়া পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

বেড়া পৌরনির্বাচনে মেয়র হতে জামায়াতের সমর্থন চান সাংসদ পুত্র রঞ্জন

বিশেষ প্রতিবেদক, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ৯ নভেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

পাবনার বেড়া পৌরসভায় মেয়র নির্বাচনে জামায়াতের সমর্থন চেয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য শামসুল হক টুকুর পুত্র ও আওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থী আসিফ শামস রঞ্জন। মঙ্গলবার বেড়া পৌর এলাকায় উপজেলা জামায়াতের আমীর ডা. আব্দুল বাসেদের সাথে দেখা করে নির্বাচনে জামায়াতের সহযোগিতা ও সমর্থন চান তিনি। আওয়ামীলীগ প্রার্থী আনুষ্ঠানিক ভাবে জামায়াতের সমর্থন চাওয়ায় জেলাজুড়ে দলীয় নেতাকর্মীদের মাঝে সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

বেড়া উপজেলা জামায়াতের আমীর ডা. আব্দুল বাসেদ জানান, সোমবার সকালে আসিফ শামস রঞ্জন আমার অফিসে সৌজন্য সাক্ষাত করেন। স্থানীয় সরকার নির্বাচনে জামায়াত প্রতিদ্বন্দিতা করছে না, সে কারণে তিনি আমার কাছে ভোট চান। বেড়া পৌরসভায় জামায়াতের প্রায় ১০ হাজার ভোট রয়েছে। আমাদের দলীয় প্রার্থী না থাকায় রঞ্জন জামায়াতের ভোট তার পক্ষে দেয়ার অনুরোধ করেছেন। কেবল রঞ্জনই নয় স্বতন্ত্র প্রার্থী ফজলুর রহমান মাসুদও সমর্থন চেয়ে আমার সাথে দেখা করেছেন।

জামায়াতের সমর্থন চাওয়ার বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামীলীগ মনোনীত মেয়র প্রার্থী ও কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য আসিফ শামস রঞ্জন বলেন, প্রাত: ভ্রমণে বের হয়ে জনসংযোগের সময় জামায়াত আমীর ডা. আব্দুল বাসেদের সঙ্গে দেখা হয়েছে। প্রার্থী হিসেবে তাদের এলাকার মানুষের ভোট ও দোয়া চেয়েছি। জামায়াতের ভোট ব্যাঙ্কের সমর্থন চাওয়ার প্রশ্নই ওঠেনা।
রঞ্জন আরো বলেন, আমি প্রকাশ্যে মিটিংয়ে বলেছি, যেহেতু জামায়াতের প্রার্থী নেই। তাদের ভোট কেন্দ্রে আসারও কোন প্রয়োজন নেই।

এদিকে, জামায়াত আমীরের সাথে সাক্ষাতের ছবি সামাজিক মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়ায় আওয়ামীলীগের নেতাকর্মীদের মাঝে সমালোচনার ঝড় উঠেছে। রফিকুল ইসলাম নামের এক আওয়ামীলীগ কর্মী ফেসবুকে তীব্র নিন্দা জানিয়ে স্ট্যাটাসে বলেন, বেড়ায় আওয়ামীলীগের কি এতটাই দৈন্যদশা যে জামায়াতের কাছে সমর্থন চাইতে হলো? মৃত্যদন্ড প্রাপ্ত শীর্ষ যুদ্ধাপরাধী, সাবেক জাময়াত আমীর মতিউর রহমান নিজামীর স্বজন ও শিষ্যদের কাছে ভোট চেয়ে আওয়ামীলীগের অবমূল্যায়ন করেছেন।

আওয়ামীলীগ প্রার্থীর জামায়াতের সমর্থন চাওয়ার বিষয়টি লজ্জার ও নৈতিকভাবে সমর্থনযোগ্য নয় বলে মন্তব্য করেছেন পাবনা জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রেজাউল রহিম লাল। তিনি বলেন, বেড়া-সাথিয়া যুদ্ধাপরাধী নিজামীর জন্মস্থান। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা যুদ্ধাপরাধের বিচার করে পাবনাবাসীকে কলংক মুক্ত করেছেন। স্বাধীনতা বিরোধী জামায়াত জনগণের কাছে ঘৃণিত দল। শেখ হাসিনা বাংলাদেশের যে উন্নয়ন করেছেন, তাতে জনসমর্থন নৌকার পক্ষে। নৌকার বিজয়ে জামায়াত বিএনপির সমর্থন সহযোগিতা আওয়ামীলীগের প্রয়োজন নেই।

আওয়ামীলীগের রাজশাহী বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক এস এম কামাল হোসেন বলেন, দল হিসেবে আমরা জামাতকে ঘৃণা করি। সামাজিকভাবে মেলামেশা নিষিদ্ধ না হলেও, আওয়ামীলীগ প্রার্থীর জামায়াতের রাজনৈতিক সমর্থন নেয়ার সুযোগ নেই। আসিফ শামস কেন জামায়াত আমিরের কাছে গিয়েছিলেন তা আমার জানা নেই। লিখিত অভিযোগ পেলে, দল বিষয়টি খতিয়ে দেখবে।

জেলা সিনিয়র নির্বাচন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান জানান, বেড়া পৌর মেয়র পদে আওয়ামীলীগের প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন পত্র জমা দিয়েছেন কেন্দ্রীয় যুবলীগের সদস্য আসিফ শামস রঞ্জন ছাড়াও স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে মনোনয়ন জমা দিয়েছেন সাংসদ শামসুল হক টুকুর ছোট ভাই উপজেলা আওয়ামীলীগের সাবেক সভাপতি ও বর্তমান মেয়র আব্দুল বাতেন এবং ভাতিজি এস এম সাদিয়া আলম।

এছাড়া মেয়র পদে আরো মনোনয়ন জমা দিয়েছেন জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য এ এইচ এম ফজলুর রহমান মাসুদ, কেন্দ্রীয় আওয়ামীলীগের মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক উপ কমিটির সদস্য ডা. আব্দুল আওয়াল ও কেএম আব্দুল্লাহ। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন। আগামী ২৮ নভেম্বর বেড়া পৌরসভার নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!