সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ১২:২৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পাবিপ্রবি’র অর্থনীতি বিভাগের যুগপূতি পাবনায় দুইদিনব্যাপী সাংস্কৃতিক উৎসব শুরু পাবনায় পুলিশের বন্ধু বঙ্গবন্ধু গ্যালারীর উদ্বোধন শিক্ষক হত্যার প্রতিবাদে পাবনায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত এবার জাল দলিলসহ ভুয়া কাগজপত্র তৈরী করে ৫২ বিঘা জমি দখলের অপচেষ্টা! পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমানের জন্মদিন পালন পাবিপ্রবির কর্মচারী পরিষদের ১১ দফা দাবিতে মানববন্ধন, স্মারকলিপি পেশ রূপপুর এনপিপিঃ দ্বিতীয় ইউনিটের অভ্যন্তরীণ কন্টেইনমেন্টে ডোম স্থাপন সম্পন্ন ভালো কাজের আনন্দ খুবই তৃপ্তির-পাবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন ভাঙ্গুড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু

অবশেষে বেড়া উপজেলার বিতর্কিত সমাজসেবা কর্মকর্তাকে বদলী

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত রবিবার, ৫ সেপ্টেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

সরকারের সামাজিক নিরপত্তা ভাতা কার্ড বাণিজ্যে অভিযুক্ত পাবনার বেড়া উপজেলার বিতর্কিত সমাজসেবা কর্মকর্তা মোতালেব সরকারকে বদলী করা হয়েছে। সমাজসেবা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক শেখ রফিকুল ইসলাম সাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ আদেশ দেয়া হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনের আদেশ অনুযায়ী মোতালেব সরকারকে নাটোর জেলার লালপুর উপজেলা সমাজসেবা হিসেবে বদলী করা হয়েছে। একই সাথে লালপুর উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোঃ রফিকুল ইসলামকে বেড়া উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তার স্থলাভিষিক্ত করা হয়েছে। আগামী ২৮ সেপ্টেম্বরের মধ্যে মোতালেব সরকারকে রফিকুল ইসলামের নিকট দায়িত্বভার বুঝিয়ে দিতে বলা হয়েছে। অন্যথায় ২৯ সেপ্টেম্বর তিনি সরাসরি অব্যহতি প্রাপ্ত হবেন বলেও প্রজ্ঞাপনে উল্লেখ করা হয়েছে।

এর আগে, বেড়া উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মোতালেব সরকারের বিরুদ্ধে সরকারি সামাজিক নিরাপত্তা (বয়স্ক, বিধবা, প্রতিবন্ধী, স্বামী পরিত্যক্তাদের) ভাতার কার্ড বিক্রিসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ অভিযোগ এনে বদলী চেয়ে সমাজসেবা অধিদপ্তরে লিখিত আবেদন করেন উপজেলার কয়েকজন ইউপি চেয়ারম্যান।

লিখিত অভিযোগে তারা বলেন, সরকারের দেয়া বিভিন্ন ভাতার জন্য উপজেলা সমাজসেবা অফিসে মোবাইল ফোন নম্বর, ছবিসহ ভোটার আইডি কার্ড জমা দেওয়া হতো ইউনিয়ন পরিষদ থেকে। কিন্তু সমাজসেবা কর্মকর্তা মোতালেব সরকার ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ও মেম্বারদের অবগত না করে টাকার বিনিময়ে নিজের ইচ্ছেমতো তালিকা তৈরি করে ভাতার বই বিতরণ করতেন।

পুরনো ভাতাভোগীদের বই ওয়েব সাইটে তালিকাভুক্তির সময় মাঠকর্মীরা গোপনে নিজেদের আত্মীয়-স্বজনের ফোন নম্বর বসিয়ে টাকা আত্মসাৎ করেছেন বলেও প্রমাণ মিলেছে । এমনকি ক্ষমতার অপব্যবহার করে, ওয়েবসাইটে তালিকাভুক্ত পুরনো ভাতার বই অনলাইন তালিকা থেকে বাতিল করে দিতেন তিনি।

অভিযোগকারী রূপপুর ইউপি চেয়ারম্যান আবুল হাশেম উজ্জল, চাকলা ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেন বলেন, ‘মোতালেব সরকার বেড়া উপজেলা সমাজসেবা অফিসে প্রায় নয় বছর ধরে কর্মরত। তার নিজ উপজেলায় দীর্ঘদিন চাকরির সুবাদে প্রভাব খাটিয়ে নানা অনিয়ম দূর্ণীতি করতেন। সবার সঙ্গে অশোভন আচরণও করতেন। তাই আমরা তার বদলী চেয়ে আবেদন করেছিলাম। উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষ তাকে বদলী করায় আমরা খুশি। আশা করছি আগামীতে বেড়া উপজেলায় জনসাধারণ সামাজিক নিরপত্তা ভাতা সঠিকভাবে পাবেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!