শনিবার, ১৫ মে ২০২১, ১০:৫৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ

বেড়ায় বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধের সিসাযুক্ত মাটি লোপাট

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১
Pabnamail24

পাবনার বেড়া উপজেলার নাটিয়াবাড়ি-কৈটোলা পাম্পিং ষ্টেশন বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ কাম সড়কের ভারেঙ্গা নতুন বাজার সংলগ্ন পানি উন্নয়ন বোডের বড়পিট ও আশ পাশের সরকারি জায়গা থেকে সিসাযুক্ত মাটি কেটে ঢাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। শুধু তাই নয়, কয়েকশ’ কোটি টাকা ব্যয়ে নির্মিত কৈটোলা পাম্প স্টেশন গেটের সামনে থেকে ও এ মাটি কেটে বিক্রি করার মতো ঘটনা ঘটেছে। আর এ মাটি লুটের অপকর্ম নির্বিঘ্ন করতে আওয়ামী লীগের নেতারা একটি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছে বলে অভিযোগ উঠেছে।

 

এ সিন্ডিকেট প্রতি ট্রাক এক লাখ টাকা করে বর্তমানে প্রতিদিন ১০ ট্রাক করে মাটি বিক্রি করছে। ইতোমধ্যে কয়েক কোটি টাকার মাটি বিক্রি করে এ সিন্ডিকেট ভাগ বন্টণ করে নিয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। পানি উন্নয়ন বোডের দুর্নীতিবাজ কতিপয় কর্মকর্তার সাথে ভাগবন্টণের চুক্তিতেই গত এক মাস ধরে এ মাটি লুটের ঘটনা ঘটলেও সবাই যেন না জানার ভান করছে। আর অবাধে মাটি কাটার ফলে কয়েক শত কোটি টাকার কৈটোলা পাম্প ষ্টেশনসহ বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ হুমকিতে পড়ার আশঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে।

এলাকার একাধিক সুত্র জানিয়েছে, ভারেঙ্গা নতুন বাজার আওয়ামী লীগ নেতা আবু দাউদের গদি ঘরের পিছনে ১৫-১৬ বছর ধরে পুরনো গাড়ির ব্যাটারি ভেঙ্গে সিসা বের করার কারখানা চালু ছিল। গত ৪ বছর এ কারখানা যমুনা নদীর ওপারে স্থানান্তর করা হয়। এ কারখানার ব্যাটারি ভেঙ্গে তা পাশের পানি উন্নয়নের বিভাগের এ পুকুরে ও আশপাশের পানি উন্নয়ন বিভাগের জায়গায় ধুয়ে পরিস্কার করে গলিয়ে সিসা বেড় করা হয়। দীর্ঘদিন এ বড়পিটে ব্যাটারি ধোয়ার কারণে পুকুরের মাটিতে বিন্দু বিন্দু সিসা জমার পর বর্তমানে পুরোমাটিই সিসাযুক্ত হয়ে পড়ে। পানি উন্নয়ন বিভাগের এ বড়পিটসহ আশপাশের জায়গা থেকে এ সিসাযুক্ত মাটি কেটে ঢাকায় বিক্রি করা হচ্ছে। ইতোপুর্বে কৈটোলা পাম্প হাউজের গেটের সামনে থেকেও একই ভাবে মাটি কেটে বিক্রি করা হয়েছে।

বেড়া উপজেলা আওয়ামীলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু দাউদ, ভারেঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগ সভাপতি আলম খা নেতৃত্বে এ মাটি বিক্রির সিন্ডিকেট গড়ে উঠেছে বলে অভিযোগ করেছে এলাকার সাধারণ মানুষ।

প্রতিদিন ২৫-৩০ লেবার দিয়ে পানি উন্নয়ন বিভাগের বড়পিট ও বিভিন্ন জায়গা থেকে মাটি কেটে তা বস্তায় ভরে মুখ সেলাই করে ঢাকার আজাহার নামক মহাজনের নিকট ট্রাক প্রতি এক লাখ টাকা করে বিক্রি করছে। ইতোমধ্যে কয়েক কোটি টাকার মাটি বিক্রির ঘটনা ঘটেছে। আর ঢাকার মহাজন সিসাযুক্ত এ মাটি বিভিন্ন প্রক্রিয়ায় সিসার কুচি পৃথক করে তা গলিয়ে পিন্ড করে অনেক বেশি লাভে তা নির্ধারিত ফ্যাক্টরিতে বিক্রি করে বলে সংশ্লিষ্টরা জানিয়েছেন।

এ সিন্ডিকেট পানি উন্নয়ন বোডের কতিপয় অসৎ কর্মকর্তা, প্রশাসন ও কতিপয় সাংবাদিককে ম্যানেজ করে এক মাস ধরে কয়েক কোটি টাকার সরকারি এ মাটি অবৈধভাবে বিক্রি করছেন। এ সিন্ডিকেট মাটি বিক্রি করে নিজেরা লাভবান হলেও সরকারি বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ ও কৈটোলা পাম্পিং ষ্টেশন হুমকির মধ্যে ফেলছে বলে এলাকাবাসী অভিযোগ করেছে।

এ ব্যাপারে ভারেঙ্গা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি আলম খা সিন্ডিকেট করাসহ পানি উন্নয়নের জায়গার মাটি কাটার বিষয় অস্বীকার করে জানান, আমার পৈতিক সম্পত্তি থেকে মাটি বিক্রি করছি। তাই আমি কেন পানি উন্নয়ন বিভাগের জায়গা থেকে মাটি কাটবো।

বেড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু দাউদ মাটি কাটার সাথে তিনি কোনমতেই জড়িত নন বলে দাবি করেছেন। জামায়াত নেতা শামীমের সাথে বার বার ফোনে চেষ্টা করা হলেও তিনি ধরেননি। বিএনপি নেতা মনিরুজ্জামানের সাথে চেষ্টা করেও বক্তব্য পাওয়া যায় নি।

এ ব্যাপারে পানি উন্নয়ন বোডের নির্বাহী প্রকৌশলী আব্দুল হামিদের সাথে যোগায়োগ করা হলে তিনি অবৈধভাবে মাটি কাটার কথা স্বীকার করে জানান এ বিষয়ে মাটি কাটার নিষেধ করতে লোক পাঠিয়েছি তার পরেও কেউ মাটি কাটলে তাদের বিরুদ্ধে মামলা করা হবে।

বেড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ সবুর আলী জানান, আমি খোঁজ নিচ্ছি অবৈধভাবে যে কেউ মাটি কাটুক না তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!