শনিবার, ৩১ অক্টোবর ২০২০, ০২:০৯ অপরাহ্ন

ইলিশ ধরা-বিক্রি বন্ধে আলোচনা সভা, লিফলেট বিতরণ

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত শুক্রবার, ৯ অক্টোবর, ২০২০
Pabnamail24

চলতি মাসের (১৪ অক্টোবর) থেকে ০৪ নভেম্বর ২০২০ইং পর্যন্ত মোট ২২ দিন ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুম। ‘‘মৎস্য আইন মেনে চলি ইলিশ সম্পদ রক্ষা করি’’ এ শ্লোগানকে সামনে রেখে পাবনা বেড়া উপজেলা প্রশাসন ও মৎস্য দপ্তরের আয়োজনে জনপ্রতিনিধি, মৎস্যজীবী, জেলে, মাছ বিক্রেতা, আড়ৎদার ও অনান্য সুধীজনদের নিয়ে ইলিশের উৎপাদন বৃদ্ধির লক্ষে মা ইলিশ ধরা ও বিক্রি বন্ধে মতবিনিময় ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়।

আজ বৃহস্পতিবার (০৮ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার ঢালারচর ইউনিয়নের কাশেম বাজারে মতবিনিময় ও আলোচনাসভা অনুষ্ঠিত হয়। এসময় চালারচরে অবস্থিত মাছ বাজার ও খাবার হোটেলে লিফলেট বিতরণ করা হয়।

ইউএনও আসিফ আনাম সিদ্দিকী’র সভাপ্রতিত্বে উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা ভারপাপ্ত চেয়াম্যান মেজবা মোল্লা, উপজেলা মৎস্য কর্মকর্তা, আব্দুল মতিন, আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোজাম্মেল হক, নগড়বাড়ি নৌ পুলিশ ফাড়ির এসআই সামসুল ও জুলফিকার আলী। এছাড়াও বেড়া মৎস্য অধিদপ্তরের সকল কর্মকর্তা উপস্থিত ছিলেন।

লিফলেটে বলা হয়েছে, মৎস্য সংরক্ষণ আইন ১৯৫০ এর সংশোধিত আইন ১৯৮৫ এর রুলস ১৩ এর ১ ধারা অনুযায়ী উল্লিখিত সময়ে সব প্রকার ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ, ক্রয়-বিক্রয়, বিনিয়োগসহ সংশিষ্ট কার্যক্রম আইনগত দ-নীয় অপরাধ।

জানা যায়, চলতি বছরের ১৪ অক্টোবর থেকে ৪ নভেম্বর পর্যন্ত মোট ২২ দিন ইলিশের প্রজনন মৌসুম সংরক্ষণ অভিযান সরকার ঘোষণা করেছে। ঘোষিত সময় সীমার মধ্যে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ ও ক্রয়-বিক্রয় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।

এই আইন অমান্যকারীর বিরুদ্ধে এক বছর থেকে সর্বোচ্চ দুই বছর সশ্রম কারাদ- ও পাঁচ হাজার টাকা জরিমানা অথবা উভয় দ-ের বিধান রয়েছে। অবৈধভাবে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ ও ক্রয়-বিক্রয়ের তথ্যাদি স্থানীয় মৎস্য বিভাগকে জানিয়ে জাতীয় মাছ ইলিশ রক্ষায় নিজেকে সামিল করুন বলেও জানানো হয়েছে লিফলেটে।

ইউএনও আসিফ আনাম সিদ্দিকী জানান, ইলিশের প্রধান প্রজনন মৌসুমে ইলিশ মাছ আহরণ, পরিবহন, মজুদ, বাজারজাতকরণ ও ক্রয়-বিক্রয় সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। এই বিষয়ে আগে থেকেই মৎস্যজীবী, জেলে, মাছ বিক্রেতা, আড়ৎদাদের সতর্ক করা হচ্ছে। ইলিশ সম্পদ রক্ষায় উপজেলা প্রশাসন ও মসৎ দপ্তর সর্বতক প্রস্তুত থাকবে। এবছর বেড়া উপজেলার তালিকাভুক্ত ৭৩০ জন জেলেদের খাদ্য সহায়তা দেয়া হবে বলেও জানান তিনি।

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!