শুক্রবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২২, ১০:৫৪ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
আব্দুল্লাহ-গালিব সৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টে নিমফুল রিফাত সৃতি সংঘের ২ উইকেটে জয় পাবিপ্রবি ভিসির বিরুদ্ধে নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ, গনিত বিভাগের চেয়ারম্যান লাঞ্ছিত সাঁথিয়ায় দেবরের ঘরে ভাবির বিয়ের দাবিতে আমরণ অনশন আব্দুল্লাহ-গালিব সৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের খেলায় পাবনা ইগলস জয়ী পাবনায় আদালত চত্বর থেকে সাক্ষী অপহরণ, বাধা দেয়ায় লাঞ্ছিত ৩ আইনজীবী চলনবিলে শীত উপেক্ষা করে কৃষকরা বোরো রোপণে ব্যস্ত ঈশ্বরদীতে শিশু হত্যা মামলায় এক আসামির যাবজ্জীবন চলনবিলাঞ্চলে শীতে ছিন্নমূল মানুষের দুর্ভোগ চাটমোহরে ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে দুধ ব্যবসায়ীর মৃত্যু জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে নির্বাচনী সংঘাতে এলাকাছাড়া পরিবারের সংবাদ সম্মেলন

পাবনায় আরও ৫ জনের মৃত্যু, আক্রান্ত ১৭৭

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত বৃহস্পতিবার, ৮ জুলাই, ২০২১
Pabnamail24

পাবনায় গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে আরো ৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। এর মধ্যে পাবনা জেনারেল হাসপাতালের করোনা ইউনিটে ৩ জন, ফরিদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ১ জন ও রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ১ জন মারা গেছে। এ সময়ে ১৭৭ জনের শরীরে করোনা সনাক্ত হয়েছে।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের পরিসংখ্যানবীদ সোহেল রানা বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

নিহতরা হলেন, পাবনার আটঘরিয়া উপজেলার খিদিরপুর গ্রামের আবুল কাশেমের স্ত্রী শম্পা খাতুন (৩০), চাটমোহরের শাহজাহান আলী (৮০), সুজানগরের চরদুলাই গ্রামের বাচ্চু মিয়া (৭০) ও জেলার ফরিদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপজেলার বেরহাওলিয়া গ্রামের মৃত আহসান আলীর স্ত্রী রহিমা খাতুন (৭০) চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন। রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছে আরও একজন।

পাবনা জেনারেল হাসপাতালের ভারপ্রাপ্ত সহকারী পরিচালক ডা. সালেহ মোহাম্মদ আলী বলেন, হাসপাতালের করোনা ইউনিটে চিকিৎসাধীন ৩ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। ফরিদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মারা যাওয়া ব্যক্তিও করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন।

জেলা সিভিল সার্জনের কার্যালয় সূত্রে জানা গেছে, ২৪ ঘণ্টায় বুধবার দুপুর ১২টা থেকে বৃহস্পতিবার দুপুর ১২টা পর্যন্ত ৯৫৩ জনের প্রাপ্ত ফলাফলে পজিটিভ এসেছে ১৭৭ জনের। এখন পর্যন্ত করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ৫ হাজার ৯৯৫ জন। মারা গেছেন মোট ২৬ জন। এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ৩ হাজার ৮০০ জন। বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতাল ও বাড়িতে চিকিৎসাধীন রয়েছেন ১৮১২ জন।

পাবনার ডেপুটি সিভিল সার্জন ডা. কেএম আবু জাফর বলেন, জনসাধারণের মধ্যে পুরোপুরি সচেতনতা না আসা পর্যন্ত করোনা মোকাবিলা করা সম্ভব নয়। পুরোনা জেলা হলেও করোনা পরীক্ষার পিসিআর ল্যাব না থাকায় এ জেলার প্রত্যন্ত অঞ্চলের মানুষ আক্রান্ত বা উপসর্গ দেখা দিলেও নির্নয় থেকে পিছিয়ে আছে। এদিকে হাসপাতালে সেন্ট্রাল অক্সিজেন চালু না হওয়ায় করোনায় সংক্রমিত রোগীদের চিকিৎসা সেবা কিছুটা ব্যহত হচ্ছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!