শনিবার, ১২ জুন ২০২১, ১১:৩৮ অপরাহ্ন

করোনায় দূর্গত পাবনাবাসীর পাশে মুক্তিযোদ্ধা সাহাবুদ্দিন চুপ্পু

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ১১ মে, ২০২১
Pabnamail24

পাবনায় করোনা ভাইরাসে প্রাদুর্ভাবে কর্মহীন অসহায় নানা শ্রেনী পেশার মানুষের পাশে নিরবে সহায়তা দিয়ে যাচ্ছেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের উপদেষ্টা পরিষদ সদস্য ও সাবেক দুদক কমিশনার সাহাবুদ্দিন চুপ্পু। ঢাকায় বসবাস করলেও এই মুক্তিযোদ্ধা ভুলে যাননি নিজ শেকড়। করোনা ভাইরাসের শুরু থেকেই নিজ জেলার মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক, শ্রমিক ও অসহায় দুস্থ মানুষের কখনো খাদ্য সামগ্রী, শীতবস্ত্র, কিংবা নগদ অর্থ নিয়ে পাশে দাড়িয়েছেন। প্রচার প্রচারণার অপেক্ষায় না থেকে সম্পূর্ণ নিজ তহবিল থেকেই এমন মানবিক দায়িত্ব পালন কওে যাচ্ছেন। সাহাবুদ্দিন চুপ্পুর এমন কার্যক্রম, প্রশংসা কেড়েছে পাবনার সর্বমহলে।

পাবনা জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রেজাউল রহিম লাল বলেন, মুক্তিযুদ্ধকালে পাবনা জেলা ছাত্রলীগের টানা তিন বারের সাবেক সভাপতি রনাঙ্গনের বীর সৈনিক শাহাবুদ্দিন চুপ্পু দেশের সকল ক্রান্তিলগ্নে নিজ দায়িত্ববোধ থেকে কাজ করেছেন। পাওয়া না পাওয়ার হিসেব না করে সব সময়ই পাবনার মানুষের পাশে থাকেন। সাম্প্রতিক কোভিড-১৯ এ বিপর্যস্থ অসহায় মানুষের দুর্দশা লাঘবে প্রথম থেকেই তিনি জেলার রাজনৈতিক কর্মী, মুক্তিযোদ্ধা, সাংবাদিক ও শ্রমজীবী মানুষের পাশে ধারাবাহিক সহযোগিতা প্রদান করে যাচ্ছেন। সরকারী ত্রানের পাশাপাশি আমরা জনপ্রতিনিধিরাও অসহায় মানুষকে বিতরণের জন্য তার সহযোগিতা পেয়েছি। প্রকৃত অর্থেই বঙ্গবন্ধুর আদর্শকে মনে প্রাণে লালন করেন বলেই সুসময়ে না পেলেও দু:সময়ে পাবনার মানুষ তাকে পাশে পায়।

পাবনা ডায়াবেটিক সমিতির সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা বেবী ইসলাম বলেন, করোনা কালের শুরু থেকে পাবনা ডায়াবেটিক হাসপাতালসহ বিভিন্ন সেবামূলক প্রতিষ্ঠানে শাহাবুদ্দিন চুপ্পু সুরক্ষা সামগ্রী ও অনুদান প্রদান করেছেন। পাবনাবাসী সব সময় আর্ত মানবতার সেবায় তাকে পাশে পেয়েছে। তার অনুরোধে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের সরকারী-বেসরকারী প্রতিষ্ঠান এম্বুলেন্স সরকারী বরাদ্দ ও জমি পেয়েছেন। পাবনার অসংখ্য বেকার যুবকদের কর্মের সংস্থান করেছেন। পাবনাবাসী চিরকাল তার অবদান শ্রদ্ধার সাথে স্মরণ করবেন।

পাবনা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা রবিউল ইসলাম রবি বলেন, কর্মজীবনের শুরুতে শাহাবুদ্দিন চুপ্পু পাবনায় সাংবাদিকতা করেছেন। কর্মজীবনে বিচার বিভাগসহ সরকারী নানা উচ্চ পদে দায়িত্ব পালন করলেও বন্ধু সহকর্মীদের ভুলে যাননি। করোনাকালে সাথী মুক্তিযোদ্ধা, সহকর্মী সাংবাদিক ও কর্মহীণ অসহায় কয়েক হাজার মানুষকে সহায়তা করেছেন। তার এই মানবিক সহায়তা অনুকরনীয় দৃষ্টান্ত।

পাবনা প্রেসক্লাবের সম্পাদক সৈকত আফরোজ আসাদ বলেন, করোনাকালে পেশাগত দায়িত্ব পালনে বিচিত্র অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হতে হয়েছে। লোক দেখানো সামান্য কিছু ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেই অনেকেই হন্যে হয়ে সংবাদকর্মীদের খুজেছেন সংবাদ প্রকাশের জন্য। ছবি তুলে ছড়িয়েছেন সামাজিক মাধ্যমে। অথচ শাহাবুদ্দিন চুপ্পু হাজার হাজার মানুষকে সহায়তা করেও কখনো সংবাদ প্রকাশের অনুরোধ করেননি।

এ বিষয়ে শাহাবুদ্দিন চুপ্পু বলেন, করোনা সংকটে মানুষ যে ভাবে বিপদের সম্মুখীন হয়েছে, তা নজিরবিহীণ। এতো বড় সংকট মোকাবেলা সরকারের একার পক্ষে সম্ভব নয়। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা তার কর্মীদের নিজ নিজ অবস্থান থেকে মানুষের পাশে দাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন। আওয়ামীলীগের একজন কর্মী হিসেবে আমার সাধ্যমতো চেষ্টা করেছি। আমি কাউকে ত্রানসামগ্রী দিচ্ছিনা, কর্তব্য বোধ থেকে আমার এলাকার মানুষকে উপহার দেওয়ার চেষ্টা করছি।
তিনি আরো বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে আমরা উন্নত সম্মৃদ্ধ বাংরাদেশের পথে এগিয়ে চলেছি। এই সংকট কালের শেষে ইনশাল্লাহ আমরা দ্রুতই সে লক্ষে পৌঁছাব।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!