বৃহস্পতিবার, ২৪ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১০:৩৯ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পাবনা-৪ উপ-নির্বাচন এলাকায় ২৬ সেপ্টেম্বর সকল ব্যাংক বন্ধ পাবনা-৪ উপ-নির্বাচনে বিএনপি প্রার্থীর নির্বাচনী ইশতহোর ঘোষণা সাঁথিয়ায় আনসারউল্লাহ বাংলা টিমের সদস্য গ্রেফতার আটঘরিয়া-ঈশ্বরদী আসনের উপ-নির্বাচনে রাতে ভোট হওয়ার সুযোগ নেই: সিইসি চাটমোহরের পাচুরিয়া গ্রামে শাহিন’র অত্যাচারে অতিষ্ঠ মৎস্যজীবীরা মাসুমদিয়ায় ঢালারচর এক্সপ্রেস ট্রেনে কাটা পড়ে ডাক্তারের মৃত্যু সাঁথিয়ায় পুলিশ কনস্টেবলের প্রতারণা ও অপকর্ম নিয়ে স্ত্রীর সংবাদ সম্মেলন স্পেশাল অলিম্পিক সাব-চ্যাপ্টার পাবনার নতুন কার্যনির্বাহী পরিষদ গঠন গ্রামীণ সড়ক উন্নয়নকরা হবে- চাটমোহরে জেলা প্রশাসক কবীর মাহমুদ চাটমোহরে বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ দখল করে অবৈধ স্থাপনা নির্মাণ

জালালপুরে বিপুল পরিমান যৌন উত্তেজক ওষুধ ও ক্যামিকেল জব্দ, ১০ লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ৮ সেপ্টেম্বর, ২০২০
Pabnamail24

পাবনার জালালপুরে এমএস ফুড এন্ড ল্যাবরেটরিজ নামের অবৈধ প্রতিষ্ঠানের কারখানায় জেলা প্রশাসনের অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ যৌন উত্তেজক সিরাপসহ অবৈধ মালামাল জব্দ করেছে। এ সময় ওই কারখানার মালিককে দশ লাখ টাকা জরিমানা ও সীলগালা করে দেওয়া হয়। সোমবার সন্ধ্যায় জাতীয় নিরাপত্তা গোয়েন্দা (এনএসআই) তথ্যের ভিত্তিতে পাবনা জেলা প্রশাসন এই অভিযান করে। অভিযান শেষে অবৈধ এই ইউনানী ওষুধের কোম্পানিতে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেছেন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মাহমুদুল হাসান।

জানা গেছে, অভিযানে যৌন উত্তেজক সিরাপ, বিপুল পরিমান ক্যামিকেল এবং মানবদেহে জন্য ক্ষতিকারক এসএস পাউডার জব্দ করা হয়। এ সময় অবৈধ প্রক্রিয়ায় পণ্য উৎপাদন ও বাজারজাত করায় ওষুধ প্রশাসন আইন অনুযায়ী কারখানার স্বত্বাধিকারী মাহবুব আলমকে নগদ ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। সেইসঙ্গে প্রায় এক কোটি টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ করা হয়েছে।

Pabnamail24

এ সময় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকারী নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট খোন্দকার মাহমুদুল হাসান জানান, এই প্রতিষ্ঠানটি অনেক দিন ধরে প্রশাসনের চোখ ফাকি দিয়ে অবৈধ ভাবে ব্যবসা পরিচালনা করে আসছেন। কোন প্রকার নিয়ম নীতি বা ওষুধ প্রশাসন অধিদফতরের অনুমোদনহীন ভাবে বিভিন্ন ঔষুধ প্রস্তুক করে বাজারজাত করে আসছিল।

স্থানীয় লোকজন জানান, এই কারখানার স্বত্বাধিকারী মাহবুব আলম পাবনার একটি স্বনামধন্য প্রতিষ্ঠানে স্বল্প বেতনে চাকুরী করে আসছিল। হঠাৎ করে তিনি কারখানার মালিক বরেন যান। কতিপয় অসাধু লোকের সহযোগিতায় তিনি বিভিন্ন যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরী করে বাজারজাত করছিল। একই সাথে অবৈধভাবে যৌন উত্তেজক সিরাপ তৈরীর মূল ক্যামিকেল এসএস পাউডারও চোরাই পথে এনে বিক্রি করছিল। ফলে রাতারাতি কোটিপতি বনে যায়। কয়েক বছরের ব্যবধানে সে গাড়ি বাড়ির মালিক হয়ে যান।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, ওষুধ প্রশাসন অধিদফতর পাবনা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালাক সুকর্ণ আহমেদ, কনজ্যুমারস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ক্যাব) জেলা শাখার যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক শফিক আল কামাল ও পুলিশ সদস্যবন্দরা।

শেয়ার করুন

এ জাতীয় আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!