শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর ২০২২, ১০:১১ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
শ্রদ্ধা ভালোবাসায় সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন পাবনায় শারদীয় দুর্গোৎসব উপেলক্ষ্যে মর্জিনা লতিফ ট্রাস্টের বস্ত্র বিতরণ একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন পাবনায় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ইসলামী আন্দোলনের নেতার ঈশ্বরদীতে গৃহবধূকে ছুরিকাঘাতে হত্যা রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে আবারও ডেঙ্গু আক্রান্ত শ্রমিকের মৃত্যু ফরিদপুরে মন্দিরের জায়গা দখল করে মেয়রের কোটি টাকার বাণিজ্য মেলা! উৎসবমুখর পরিবেশে পাবিপ্রবিতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উদযাপন প্রতারণার অভিযোগ, সুজানগরে আ. লীগের নেতা উজ্জ্বলকে অবরুদ্ধ করে টাকা ফেরতের দাবী ও আলোর পথযাত্রী, এখানে থেমো না!

সন্তানের রক্তাক্ত শরীর দেখে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লেন বাবা

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ১৪ ডিসেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

সন্তানের রক্তাক্ত শরীর দেখে মৃত্যুর কোলে ঢোলে পড়লেন বাবা।
দুইপক্ষের সংঘর্ষে আহত ছেলে শাহাদত হোসেন মন্ডল (৩২) এর রক্তাক্ত শরীর দেখে হৃদযন্ত্রের ক্রিয়া বন্ধ হয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়লেন বাবা মোক্তার হোসেন (৭৫)।
মঙ্গলবার (১৪ ডিসেম্বর) দুপুরে পাবনার চাটমোহর উপজেলার হান্ডিয়াল ইউনিয়নের সিদ্ধিনগর পশ্চিমপাড়া গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত মোক্তার ওই গ্রামের মৃত বাছির মন্ডলের ছেলে।

স্থানীয়রা জানান, মোক্তার মন্ডলের ছেলে শাহাদত মন্ডল ও জলিল মন্ডলের ছেলে নুরুল ইসলাম সম্পর্কে আপন চাচাতো ভাই। তারা দুইজন একসঙ্গে পুকুর কেনা এবং মাছের ব্যবসা করে আসছেন। ব্যবসায়িক লেনদেন নিয়ে দুপুরে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে সংঘর্ষ হলে নুরুল ইসলাম বটি ও দা দিয়ে শাহাদত মন্ডলকে এলোপাথাড়ি কুপিয়ে রক্তাক্ত জখম করে। খবর পেয়ে আহতের বাবা মোক্তার হোসেন ঘটনাস্থলে গেলে ছেলের রক্তাক্ত শরীর দেখে হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়েন। তাকে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসকের কাছে নিয়ে গেলে মৃত ঘোষণা করা হয়।

এছাড়া আহত ছেলেকে স্থানীয়রা উদ্ধার করে চাটমোহর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লক্সে নিলে চিকিৎসক পাবনা জেনারেল হাসপাতালে স্থানান্তর করে। বর্তমানে তিনি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

পরিবারের স্বজনরা জানায়, মৃত মোক্তার হোসেন দীর্ঘদিন যাবত হৃদরোগ, ডায়াবেটিস সহ নানারোগে আক্রান্ত ছিলেন। তবে ছেলেকে মারধরের ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে শাস্তি চান তারা।

চাটমোহর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আনোয়ার হোসেন এ তথ্য নিশ্চিত করে বলেন, ঘটনার পরপরই জড়িতরা পালিয়ে গেছে। তাদের আটকের চেষ্টা চলছে। পরিবারের কোন অভিযোগ না থাকায় মৃতের মরদেহ দাফনের অনুমতি দেওয়া হয়েছে।

ওসি আরো বলেন, সংঘর্ষের ঘটনায় পরিবার থেকে লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!