বৃহস্পতিবার, ২১ অক্টোবর ২০২১, ০৮:৩৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
সম্প্রীতি বিনষ্টের প্রতিবাদে সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট’র মানববন্ধন ভাঙ্গুড়ায় স্কুল শিক্ষককে পিটিয়ে জখম ভাঙ্গুড়ায় সম্প্রীতি সমাবেশ ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত পাবনায় সম্প্রীতি সমাবেশ ও শোভাযাত্রা অনুষ্ঠিত সুজানগরে ১০ ইউনিয়নে আ.লীগ নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থীর ছড়াছড়ি ঈশ্বরদীতে মোটর সাইকেল ও ভ্যানের সঙ্গে ট্রাকের মুখোমুখি সংঘর্ষে তিন জন নিহত মালিগাছা ইউনিয়ন পরিষদের নবনির্মিত ভবনের উদ্বোধন চাঞ্চল্যকর বিল্লাল মিশরী হত্যা রহস্য উদঘাটন; চরমপন্থি নেতা আবুসহ গ্রেপ্তার ২ সাম্প্রদায়িক সম্প্রতির উজ্জ্বলতম দেশ বাংলাদেশ-অঞ্জন চৌধুরী পিন্টু পাবনায় রেটিং দাবা লীগের পুরস্কার বিতরণ

চাটমোহরে অবাধে বিক্রি হচ্ছে স্পর্শকাতর গ্যাস সিলিন্ডার, পেট্টোল ডিজেল

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত রবিবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

পাবনার চাটমোহরে অবাধে বিক্রি হচ্ছে স্পর্শকাতর এলপিজি (গ্যাস সিলিন্ডার) ও পেট্টোল-ডিজেল। ফলে যে কোন সময় ঘটতে পারে বড় ধরনের দূর্ঘটনা। এর প্রতিকারের জন্য দোকানে নেই কোন আগুন নেভানোর ব্যবস্থা। এ নিয়ে নানা অজুহাত ব্যবসায়ী ও দোকানীদের।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. সৈকত ইসলাম বলেছেন, যেখানে সেখানে পেট্টোল, ডিজেল আর এলপিজি বিক্রি করায় দূর্ঘটনার সম্ভাবনা রয়েছে। এজন্য পদক্ষেপ নেওয়া হবে। ছোট ছোট দোকান বন্ধ করতে তিনি বিট পুলিশ, ইউপি চেয়ারম্যান ও আনসার ও ভিডিপি কর্মকর্তার সমন্বয়ে কমিটি গঠণ করেন। তাছাড়া ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালনা করা হবে বলে জানান তিনি।

সভায় সহকারী কমিশনার (ভূমি) শারমিন ইসলাম বলেন, বিস্ফোরক লাইসেন্স নিয়ে ব্যবসা করতে হবে। তাছাড়া ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সরেজমিন ঘুরে দেখা গেছে, চাটমোহর পৌর শহরসহ উপজেলার হাট-বাজার, রাস্তার মোড়ে মোড়ে সড়কের পাশে প্রকাশ্যে বিক্রি হচ্ছে এলপি গ্যাস, পেট্টোল ও ডিজেল। দামও নেওয়া হচ্ছে বেশি। গ্যাস ও তেল বিক্রির জন্য নেই কোন অগ্নিনির্বাপক বা বিস্ফোরক লাইসেন্স। দোকানী ও ব্যবসায়ীরা বলছেন, তাদের প্রতিষ্ঠানের ট্রেড লাইসেন্স রয়েছে। দেখা গেছে, ট্রেড লাইসেন্স করা হয়েছে মুদি দোকান, চায়ের দোকান বা ইলেট্রিক্যাল সামগ্রী বিক্রির জন্য।

উপজেলার মুদি দোকান থেকে শুরু করে পানের দোকান, ফোনে টাকা রিচার্জের দোকান, প্লাস্টিক সামগ্রীর দোকান, ফলের দোকান, বিভিন্ন শো-রুম, ওষুধের দোকান, কীটনাশকের দোকান, বৈদ্যুতিক যন্ত্রপাতির দোকানের সামনে রাখা হয়েছে এলপি গ্যাস, ডিজেল ও পেট্টোল। এ ধরণের ব্যবসার ফলে সরকার যেমন রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। তেমনি দূর্ঘটনার আশংকাও রয়েছে।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *