বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৩৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন প্রক্টর মো. কামাল হোসেন পাবনা হাসপাতালে দালালের বিরুদ্ধে নার্সকে মারধরের অভিযোগে কর্মবিরতি বাউয়েট আইন অনুষদের তিন সদস্য বিশিষ্ট টিমের দিল্লি ল’ কনফারেন্সে অংশগ্রহন। মুক্তিতে বাধা নেই সাবেক এমপি সেলিম রেজা হাবিবের দুলাই আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসীন্দাদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের কম্বল বিতরণ কাশীনাথপুরে ক্যাডেট কলেজের নামে প্রতারণা! মালঞ্চি ইউনিয়ন, জমির ভুয়া মালিকানায় রাস্তা নির্মাণে বাধা দেয়ার অভিযোগ বেড়ায় পুলিশের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে আসামি ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ ধর্ষণ মামলায় পাবনার সাবেক এমপি আরজুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের সাথে মানবাধিকার কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য সেলিম রেজা

পাবিপ্রবির শিক্ষার্থী সুজা এখন অ্যামাজনে

পাবিপ্রবি প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত মঙ্গলবার, ৬ ডিসেম্বর, ২০২২
Pabnamail24

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (পাবিপ্রবি) দ্বিতীয় শিক্ষার্থী হিসেবে বিশ্বখ্যাত টেক জায়ান্ট কোম্পানি অ্যামাজনে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে চাকরি পেয়েছেন কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের (সিএসই) তৃতীয় ব্যাচের শিক্ষার্থী সালাউদ্দিন আহমেদ সুজা। সোমবার (৫ ডিসেম্বর) তিনি লন্ডনে অ্যামাজনের হেড অফিসে যোগ দিয়েছেন।

এর আগে এই বছরের শুরুতে আয়ারল্যান্ডে অ্যামাজনের ডাবলিন অফিসে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে চাকরি পেয়েছেন সিএসই বিভাগের পঞ্চম ব্যাচের আরেক শিক্ষার্থী আবু রায়হান।

সালাউদ্দিন আহমেদ সুজা পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০১০-১১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থী ছিলেন। তিনি নওগাঁ শহরের মো. সিরাজ উদ্দীন এবং আঞ্জুমআরার বড় ছেলে। ২০১৬ সালে পাবিপ্রবির সিএসই বিভাগ থেকে তিনি স্নাতক (বিএসসি) শেষ করেন।

স্নাতক শেষ করার পর দেশের জুনিয়র অ্যাপ ডেভেলপার হিসেবে কাজ শুরু করেন। এরপর আরো কয়েকটা চাকুরির পর ২০১৯ সালে পাড়ি জমান ইন্দোনেশিয়ায়। সেখানে তিনি একটি কোম্পানিতে সফটওয়্যার ডেভেলপার হিসেবে কাজ শুরু করেন। সর্বশেষ তিনি জার্মানির বার্লিনে ডেলেভারি হিরো কোম্পানিতে সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার হিসেবে কাজ করেছেন।

অ্যামাজনে চাকরি পাওয়ার পর বলেন, পাবিপ্রবির শিক্ষার্থী হিসেবে অ্যামাজনে জয়েন করতে পেরে নিজের কাছে সত্যি ভালো লাগছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকেও যে বিশ্বের বড় বড় কোম্পানিগুলোতে চাকরি সম্ভব সেটা এখন প্রমাণিত।

তিনি আরো বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় নিয়ে অনেকেই অনেক কথা বলেন। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ে অনেক কিছু নাই সেটা সত্য। কিন্তু এই না থাকার মধ্যেও অনেক কিছু আছে। আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে শিক্ষার্থীরা বিশ্বের ভালোভালো জায়গাতে কাজ করার সুযোগ পাচ্ছে। আমি মনে করে চেষ্টা করলে সবই সম্ভব। আমরা চেষ্টা করেছি, আমাদের পরবর্তী যারা আছে তারাও চেষ্টা করে ভালোভালো জায়গাতে নিজেদের নিয়ে যাবেন।

শিক্ষার্থীর সাফল্যের বিষয়ে কম্পিউটার বিজ্ঞান ও প্রকৌশল বিভাগের (সিএসই) বিভাগের চেয়ারম্যান ড. আবদুর রহিম বলেন, এই সংবাদ আমাদের বিশ্ববিদ্যালয় এবং বিভাগের জন্য গর্বের। আমাদের শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন জায়গাতে ভালো করছে এটা আমাদের জন্য আনন্দের। সুজাকে দেখে অন্যান্য শিক্ষার্থীরাও অনুপ্রাণিত হবে। আগামীতে আমাদের জন্য আরো ভালো কিছু অপেক্ষা করছে।

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!