বুধবার, ০১ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:৪৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
বাউয়েট আইন অনুষদের তিন সদস্য বিশিষ্ট টিমের দিল্লি ল’ কনফারেন্সে অংশগ্রহন। মুক্তিতে বাধা নেই সাবেক এমপি সেলিম রেজা হাবিবের দুলাই আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসীন্দাদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের কম্বল বিতরণ কাশীনাথপুরে ক্যাডেট কলেজের নামে প্রতারণা! মালঞ্চি ইউনিয়ন, জমির ভুয়া মালিকানায় রাস্তা নির্মাণে বাধা দেয়ার অভিযোগ বেড়ায় পুলিশের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে আসামি ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ ধর্ষণ মামলায় পাবনার সাবেক এমপি আরজুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের সাথে মানবাধিকার কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য সেলিম রেজা পাবনায় চাঁদাবাজি মামলায় সাবেক যুবলীগ নেতা গ্রেফতার, জেল হাজতে প্রেরণ প্রকাশিত হলো স্টুডিও কৃত্তিমের নতুন গান জোছনা

ভিসিপন্থি পাবিপ্রবি কর্মকর্তারা ২য় দিনের মতো আন্দোলন করেছে

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত রবিবার, ২৭ ফেব্রুয়ারী, ২০২২
Pabnamail24

১৭ দফা দাবিতে রেজিষ্টার দপ্তরে তালা দিয়ে রোববার দ্বিতীয়দিনের মতো কর্মসূচী পালন করেছে পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসিপন্থি কর্মকর্তারা। শনিবার সকাল দশটা থেকে অফিসার্স এসোসিয়েশনের পক্ষ থেকে রেজিষ্টার দপ্তরের গেটে তালা ঝুলিয়ে দেয়া হয়। এর মাধ্যমে রেজিস্টার দপ্তরের কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে বলে জানান আন্দোলনকারীরা।

বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসার্স এসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক সোহাগ হোসেন বলেন, করোনাকালীন সময়ে অর্ধেক জনবল নিয়ে অফিস করা, উচ্চতর স্কেল প্রদান, অটো পদোন্নতি, বিশ^বিদ্যালয়ের সকল কমিটিতে কর্মকর্তাদের অন্তর্ভূক্ত করা সহ ১৭ দফা দাবি গত ২৪ জানুয়ারী লিখিতভাবে রেজিষ্টারের মাধ্যমে উপাচার্যকে জানানো হয়। উপাচার্য গত ২৯ জানুয়ারি কর্মকর্তাদের তার বাসভবনে ডেকে দাবি পূরণের আশ^াস দেন এবং পরবর্তী সাত কর্মদিবসের মধ্যে বাস্তবায়নের কথা জানান। উপাচার্য দাবি পূরণ বা বাস্তবায়নের কোনো উদ্যোগ নেননি। তাই বাধ্য হয়ে রেজিষ্টার দপ্তরের প্রধান গেটে তালা ঝুলিয়ে দেওয়া হয়েছে। দাবি পূরণ না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে বলে জানান আন্দলোনকারীরা।

বিশ^বিদ্যালয়ে কর্মরত একাধিক কর্মকর্তারা জানান, সম্প্রতি একটি মামলায় বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি হারুন অর রশিদ ডন বিশ^বিদ্যালয় থেকে সাসপেন্ড হন। সেই বহিষ্কারাদেশ প্রত্যাহারের জন্যই মূলত এই আন্দোলন করা হচ্ছে।
তবে সাধারণ সম্পাদকের নিকট বিষয়টি নিয়ে জানতে চাইলে তিনি এড়িয়ে যান।

এ ব্যাপারে বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্টার (চলতি দায়িত্ব) বিজন কুমার ব্রক্ষ্ম বলেন, কর্মকর্তাদের আন্দোলনের বিষয়টি ভিসি স্যারকে জানানো হয়েছে। তিনি বিষয়টি দেখছেন। আন্দোলনের কারণে রেজিষ্টার দপ্তরের সকল কার্যক্রম বন্ধ রয়েছে।
এ বিষয়ে কথা বলার জন্য বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফসর ড. এম রোস্তম আলীর সঙ্গে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্ঠা করেও তাকে পাওয়া যায়নি।

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!