বৃহস্পতিবার, ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০১:৪৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পিএইচডি ডিগ্রি অর্জন করলেন প্রক্টর মো. কামাল হোসেন পাবনা হাসপাতালে দালালের বিরুদ্ধে নার্সকে মারধরের অভিযোগে কর্মবিরতি বাউয়েট আইন অনুষদের তিন সদস্য বিশিষ্ট টিমের দিল্লি ল’ কনফারেন্সে অংশগ্রহন। মুক্তিতে বাধা নেই সাবেক এমপি সেলিম রেজা হাবিবের দুলাই আশ্রয়ণ প্রকল্পের বাসীন্দাদের মাঝে উপজেলা প্রশাসনের কম্বল বিতরণ কাশীনাথপুরে ক্যাডেট কলেজের নামে প্রতারণা! মালঞ্চি ইউনিয়ন, জমির ভুয়া মালিকানায় রাস্তা নির্মাণে বাধা দেয়ার অভিযোগ বেড়ায় পুলিশের বিরুদ্ধে টাকার বিনিময়ে আসামি ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ ধর্ষণ মামলায় পাবনার সাবেক এমপি আরজুর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা তুরস্কের প্রেসিডেন্ট এরদোগানের সাথে মানবাধিকার কমিশনের সার্বক্ষণিক সদস্য সেলিম রেজা

ঈশ্বরদীর সেই ৩৭ কৃষকের ঋণ সংক্রান্ত বিযয়ে তদন্ত শুরু

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত সোমবার, ৫ ডিসেম্বর, ২০২২
Pabnamail24

ঋন খেলাপির দায়ে মামলায় অভিযুক্ত পাবনার ঈশ্বরদী উপজেলার সলিমপুর ইউনিয়নের ভাড়ইমারী গ্রামের সেই ৩৭ কৃষকের ঋন সংক্রান্ত বিষয় পর্যালোচনা করতে কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের তিন সদস্যের তদন্ত কমিটি মাঠপর্যায়ে কাজ শুরু করেছে।

রবিবার সকালে ব্যাংকের ডিজিএম আহসানুল গনির নেতৃত্বে তদন্ত কমিটির সদস্যরা ভাড়ইমারী গ্রামে পৌছান। সেখানে তারা ভুক্তভোগী কৃষকদের সঙ্গে কথা বলেন।

সোমবার (৫ ডিসেম্বর) সকালে ব্যাংকের ডিজিএম আহসানুল গণির নেতৃত্বে তদন্ত কমিটির সদস্যরা ভাড়ইমারী গ্রামে পৌঁছান। এ সময় সেখানে তারা ভুক্তভোগী কৃষকদের সঙ্গে কথা বলেন। এর আগে গত ২৫ নভেম্বর ১২ কৃষককে গ্রেপ্তার করে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

ষক ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানান, ভুক্তভোগী কৃযকদেরকে কোন নোটিশ না দিয়ে সম্পূর্ণ হয়রানিমূলকভাবে ৩৭ জন কৃষকের নামে মামলা করা হয়েছে। ওই মামলায় ১২ জন কৃষককে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। তদন্ত কমিটির সদস্যরা তদন্তের সময় কৃষকদের কাছে পাঠানো কোন নোটিশের কপিও দেখাতে পারেননি। তারা অবিলম্বে হয়রানিমূলকভাবে দায়ের করা ওই মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।

এদিকে বিষয়টি গণমাধ্যমে আসার পর ব্যাপক সমালোচনার সৃষ্টি হয়। গত ২৭ নভেম্বর পাবনার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত-২-এর ভারপ্রাপ্ত বিচারক শামসুজ্জামান গ্রেপ্তার ১২ কৃষকসহ ৩৭ জন কৃষকের জামিন মঞ্জুর করেন।
কৃষক ও স্থানীয় জনপ্রতিনিধিরা জানান, ভুক্তভোগী কৃযকদেরকে কোনো নোটিস না দিয়ে সম্পূর্ণ হয়রানিমূলকভাবে ৩৭ জন কৃষকের নামে মামলা করা হয়েছে। মামলায় ১২ জন কৃষককে গ্রেপ্তার করে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

তিনি আরও জানান, তদন্ত কমিটির সদস্যরা তদন্তের সময় কৃষকদের কাছে পাঠানো কোনো নোটিশের কপিও দেখাতে পারেননি। তারা অবিলম্বে হয়রানি মূলকভাবে দায়ের করা মামলা প্রত্যাহারের দাবি জানান।
তদন্ত কমিটির প্রধান ও সমবায় ব্যাংকের ডিজিএম (পরিদর্শন) আহসানুল গণি বলেন, ব্যাংকের শীর্ষ কর্মকর্তাদের নির্দেশনা রয়েছে। আমরা এ বিষয়ে গণমাধ্যমে কাছে কোনো বক্তব্য দিতে পারব না।

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!