রবিবার, ১৪ এপ্রিল ২০২৪, ০৮:৩১ পূর্বাহ্ন
সর্বশেষ :

ঈশ^রদী জংশনে বোমা সদৃশ বস্তু উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • আপডেট টাইম : শুক্রবার, ৩ নভেম্বর, ২০২৩

পাবনার ঈশ্বরদী রেল জংসনে রেল লাইন থেকে অবিস্ফোরিত বোমাসদৃশ বস্তু উদ্ধার করেছে র‌্যাব। শুক্রবার সকালে র‌্যাব-৫ এর বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল রেলস্টেশন থেকে বোমা সদৃশ বস্তুুটি উদ্ধার করে।
পুলিশ জানায়, ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে ১ নম্বর প্ল্যাটফর্ম ইয়ার্ডে রেল লাইনের দাঁড় করিয়ে রাখা চায়না নতুন কোচের (বগি) নিচে লাল টেপ প্যাঁচানো একটি বোমা সদৃশ বস্তু দেখতে পান রেলওয়ে নিরাপত্তা বাহিনীর দুজন সদস্য। এতে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। র‌্যাব-পুলিশ এলাকাটি ঘিরে রাখে। পরে রাজশাহী র‌্যাবের বোমা নিষ্কিয়কারী দলের সদস্যরা ঘটনাস্থলে এসে কাজ শুরু করেন। উদ্ধার করা অবিস্ফোরিত ককটেল সদৃশ বোমাটি শুক্রবার বেলা ১২টায় বিস্ফোরণ ঘটানো হয়।
পাকশী রেলওয়ে পুলিশের এসপি শাহাবুদ্দিন বলেন, রেললাইনের দাঁড় করিয়ে রাখা চায়না নতুন কোচের (বগি) নিচে লাল টেপ প্যাঁচানো বোমা সদৃশ বস্তু দেখতে পান সেখানে দায়িত্ব পালনরত আরএনবি সদস্যরা। পরে পাবনা ও আশপাশের জেলায় পুলিশের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল না থাকায় রাজশাহী র‌্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলকে খবর দেওয়া হয়। তারা বোমাটি উদ্ধার করে বিস্ফোরণ ঘটায়।
র‌্যাব জানায়, রাতে কে বা কারা ঈশ্বরদী জংশনে লাল টেপে জড়ানো একটি কৌটার মতো বস্তু রেললাইনে থেমে থাকা একটি বগির নিচে রেখে যায়। ভোরে রেলওয়ের নিরাপত্তা কর্মীদের টহলদল বস্তুটি দেখতে পেয়ে আইনশৃংখলা বাহিনীকে জানান। পরে র‌্যাবের বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল বোমা সদৃশ বস্তুটি সরিয়ে নেয় ও বিস্ফোরণ ঘটিয়ে নিষ্ক্রিয় করবেন।
র‌্যাব-১২ অধিনায়ক অতিরিক্ত ডিআইজি মো. মারুফ হোসেন জানান, শুক্রবার গভীর রাতে রেলওয়ে পুলিশের কাছ থেকে খবর পেয়ে আমরা ঘটনাস্থল ঘিরে রাখার নির্দেশনা দেই। সকালে র‌্যাব-৫ এর বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দল রেলের বগির নিচে লাল টেপে জড়ানো বস্তুটি সরিয়ে নেয়।
তিনি আরো বলেন, কোনো সন্ত্রাসী গোষ্ঠী আতঙ্ক ছড়ানোর জন্য বোমাটি ফেলে যেতে পারে বলে তাঁদের কাছে মনে হচ্ছে। বস্তুটিতে উচ্চ ক্ষমতা সম্পন্ন বিস্ফোরক রয়েছে বলে প্রাথমিক ধারণা বোমা নিষ্ক্রিয়কারী বিশেষজ্ঞদের।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন, র‌্যাব-১২ সিপিসি-২ এর কোম্পানি কমান্ডার সহকারী পুলিশ সুপার গোলাম ফারুফ, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার (ইউএনও) সুবীর কুমার দাস ও পশ্চিমাঞ্চল রেলওয়ের পাকশী বিভাগীয় রেলওয়ের পরিবহন কর্মকর্তা (ডিটিও) আনোয়ার হোসেন প্রমুখ।
ঈশ^রদী উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সুবীর কুমার দাস বলেন, জনমনে আতঙ্ক সৃষ্টির জন্যই ঈশ^রদী রেল জংসনে দুষ্কৃতিকারীরা বোমা সদৃশ বস্তুটি রেখে গেছে। র‌্যাব রেলপথের নিরপত্তায় যথাযথ ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে। রেল চলাচল স্বাভাবিক রয়েছে।
এর আগে, গত বুধবার দুপুরে ঈশ্বরদী জংশন স্টেশন ছেড়ে যাওয়ার পর ঢাকাগামী মৈত্রী এক্সপ্রেস ট্রেনে দুর্বৃত্তরা হামলা চালায়। পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে বোতলে ভর্তি পেট্রল উদ্ধার করে। বুধবারের ঘটনার রেশ কাটতে না কাটতেই আবারও ঈশ্বরদী জংশন স্টেশনে ককটেল উদ্ধারের খবরে জনমনে আতঙ্কের সৃষ্টি হয়েছে।

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..