বৃহস্পতিবার, ২৭ জানুয়ারী ২০২২, ১২:০৮ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
আব্দুল্লাহ-গালিব সৃতি ক্রিকেট টুর্নামেন্টের খেলায় পাবনা ইগলস জয়ী পাবনায় আদালত চত্বর থেকে সাক্ষী অপহরণ, বাধা দেয়ায় লাঞ্ছিত ৩ আইনজীবী চলনবিলে শীত উপেক্ষা করে কৃষকরা বোরো রোপণে ব্যস্ত ঈশ্বরদীতে শিশু হত্যা মামলায় এক আসামির যাবজ্জীবন চলনবিলাঞ্চলে শীতে ছিন্নমূল মানুষের দুর্ভোগ চাটমোহরে ছিনতাইকারীর কবলে পড়ে দুধ ব্যবসায়ীর মৃত্যু জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে নির্বাচনী সংঘাতে এলাকাছাড়া পরিবারের সংবাদ সম্মেলন স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরীক্ষা গ্রহণের দাবিতে পাবনায় শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন পাবনায় পদ্মা নদীর বুকে সেই রাস্তা অপসারণ করলো প্রশাসন রূপপুর প্রকল্পে থামছে না চুরি, এবার ক্যাবল চুরি

শত বছরের নিরপত্তায় রূপপুর বিদ্যুৎ প্রকল্পের ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা নির্মান প্রকল্প উদ্বোধন

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত বুধবার, ১ ডিসেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মান প্রকল্পের নিরপত্তায় সর্বাধুনিক নিরপত্তা বলয় তৈরী করে নিরাপদ ও সুরক্ষিত বিদ্যুৎ উৎপাদনে সহায়ক পরিবেশ তৈরী করতে কাজ শুরু করেছে সেনাবাহিনী। বুধবার পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরপত্তায় ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা (পিপিএস) প্রকল্প কাজের উদ্বোধন করেন বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান।

প্রকল্প সংশ্লিষ্টরা জানান, আন্তর্জাতিক গাইডলাইন অনুযায়ী পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের আগামী ১০০ বছরের নিরপত্তার বিষয়টি বিবেচনায় নিয়ে পাঁচ স্তরের নিরপত্তা বলয় নির্মাণ, তথ্য সুরক্ষায় সাইবার নিরপত্তা ও সংবেদনশীল তথ্যের ব্যবস্থাপনায় কাজ করা হবে এ প্রকল্পে। বিজ্ঞান প্রযুক্তি মন্ত্রনালয়ের তত্ত্বাবধানে সেনাবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় রাশান ফেডারেশনের জেএসসি এলেরন কোম্পানি প্রকল্পটি নির্মাণ করবে।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রী ইয়াফেস ওসমান বলেন, দেশের প্রথম পারমাণবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্র নির্মাণে রূপপুর প্রকল্পে আন্তর্জাতিক পরমানু শক্তি সংস্থা ( আইএইএ) গাইড লাইন মেনে পুরোদমে চলছে কাজ। শেষ হয়েছে প্রথম ইউনিটের পারমাণবিক যন্ত্রাংশ সংযোজন সহ পুরো প্রকল্পের ৫০ ভাগ কাজ। পরবর্তী ধাপের লাইসেন্স পেতে নিশ্চিত করতে হবে পারমানবিক নিরপত্তা। সেনাবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় সর্বাধুনিক নিরপত্তা বলয় গড়তে রাশিয়ান প্রতিষ্ঠান জেএসসি এলেরনের মাধ্যমে শুরু হলো রূপপুর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা নির্মাণ প্রকল্পের কাজ। আন্তর্জাতিক শর্ত অনুযায়ী পরবর্তী ধাপের লাইসেন্স পেতে প্রকল্পটি গুরুত্বপূর্ণ।

মন্ত্রী আরো বলেন, রূপপুর প্রকল্পে প্রায় ২৫ হাজার মানুষ কাজ করে। সামান্য একজন ব্যক্তিও সার্বিক নিরপত্তায় বড় ধরণের বিপর্যয় বয়ে আনতে পারেন। এ কারণে, সেনাবাহিনীকে প্রকল্পের নিরপত্তায় সব সময় নজরদারী করতে হয়। সরকার নিরপত্তার প্রশ্নে কোন দূর্বলতা রাখবে না। ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা নির্মাণ সম্পন্ন হলে, রূপপুর প্রকল্পের নিরপত্তা আরো জোরদার হবে।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন সেনাবাহিনীর চীফ অব জেনারেল স্টাফ লে.জে আতাউল হাকিম সারওয়ার জাহান, রাশান স্টেট কর্পোরেশন রোসাটমের বৈদেশিক প্রকল্প প্রধান রুসলান বাইচুরিন, প্রকল্প পরিচালক কর্ণেল কবির উদ্দিন শিকদার সহ প্রকল্প কর্মকর্তারা।

প্রকল্প পরিচালক কর্নেল কবির উদ্দিন শিকদার বলেন, পিপিএস প্রকল্পটি রূপপুর পারমাণিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের অভ্যন্তরীণ ও বাহ্যিক হুমকি মোকাবিলা করবে। নিরাপদ ও সুরক্ষিত পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদনের সহায়ক পরিবেশ সৃষ্টির পাশাপাশি তেজস্ক্রিয় পদার্থের ব্যবস্থাপনা ও নিয়ন্ত্রণ প্রতিষ্ঠা, সাইবার নিরাপত্তা এবং সংবেদনশীল তথ্য ব্যবস্থাপনা এ প্রকল্পের প্রধান উদ্দেশ্য।

তিনি আরো বলেন, রূপপুর পারমানবিক বিদ্যুৎ কেন্দ্রের বাহ্যিক নিরপত্তায় পাঁচ স্তরের নিরপত্তা বলয়, তথ্য ও সাইবার নিরপত্তায় সর্বাধুনিক প্রযুক্তির সুরক্ষা বলয় গড়ে তোলাই হবে ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা নির্মণ প্রকল্পের কাজ। নিরাপদ ও সুরক্ষিত পারমাণবিক বিদ্যুৎ উৎপাদনে সেনাবাহিনীর ব্যবস্থাপনায় প্রকল্পটি বাস্তবায়নে কাজ করবে রাশিয়ান প্রতিষ্ঠান জেএসসি এলেরন।

সেনাবাহিনীর চীফ অব জেনারেল স্টাফ লে.জে আতাউল হাকিম সারওয়ার জাহান বলেন, রূপপুর বিদ্যুৎ কেন্দ্রের নিরপত্তা বলয় ও কৌশলের নকশা তৈরী করেছে জেএসসি এলেরন। রাশিয়ায় প্রশিক্ষণ শেষে বাংলাদেশী সেনা সদস্যরা দায়িত্ব নেবেন প্রকল্পের সার্বিক নিরপত্তার। আশা করছি সবার প্রচেষ্টায় নির্ধারিত সময়েই পিপিএস প্রকল্প কাঙ্খিত মাইল ফলক অর্জনে সমর্থ হবে।

২০১৯ সালে রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে ৩ হাজার ৪৪৯ কোটি ৫ লাখ টাকার ভৌত সুরক্ষা ব্যবস্থা (পিপিএস) প্রকল্প অনুমোদন দেয় সরকার। ২০২৪ সালের ডিসেম্বরে প্রকল্পের কাজ শেষ করার আশা সংশ্লিষ্টদের।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

error: Content is protected !!