রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ১১:২০ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পাবিপ্রবি’র অর্থনীতি বিভাগের যুগপূতি পাবনায় দুইদিনব্যাপী সাংস্কৃতিক উৎসব শুরু পাবনায় পুলিশের বন্ধু বঙ্গবন্ধু গ্যালারীর উদ্বোধন শিক্ষক হত্যার প্রতিবাদে পাবনায় মানববন্ধন অনুষ্ঠিত এবার জাল দলিলসহ ভুয়া কাগজপত্র তৈরী করে ৫২ বিঘা জমি দখলের অপচেষ্টা! পাবনা প্রেসক্লাব সভাপতি এবিএম ফজলুর রহমানের জন্মদিন পালন পাবিপ্রবির কর্মচারী পরিষদের ১১ দফা দাবিতে মানববন্ধন, স্মারকলিপি পেশ রূপপুর এনপিপিঃ দ্বিতীয় ইউনিটের অভ্যন্তরীণ কন্টেইনমেন্টে ডোম স্থাপন সম্পন্ন ভালো কাজের আনন্দ খুবই তৃপ্তির-পাবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. হাফিজা খাতুন ভাঙ্গুড়ায় বিদ্যুৎস্পৃষ্ট হয়ে যুবকের মৃত্যু

সাঁথিয়ায় সাবেক চেয়ারম্যানের ভাইকে কুপিয়ে হত্যা, আহত ১

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত রবিবার, ৫ জুন, ২০২২
Pabnamail24

পাবনার সাঁথিয়ায় সাবেক চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদের চাচাতো ভাইকে কুপিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। এসময় চেয়ারম্যানের আপন ভাই আহত অবস্থায় হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।
শনিবার (৫ জুন) রাত ৯টার দিকে উপজেলার পৌর সদরের ছোট পুটিপাড়া গ্রামে ঘটনাটি ঘটেছে । এলাকায় থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। গ্রামের মোড়ে মোড়ে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ ঘটনায় পুটিপাড়া গ্রামের আবু সাইদ নামে একজনকে পুলিশ আটক করেছে বলে জানা গেছে।

স্থানীয় এলাকাবাসী জানায়, স্থানীয় রাজনৈতিক প্রভাব বিস্তারকে কেন্দ্র করে দীর্ঘ দিন ধরে নাগডেমরা ইউপির সাবেক চেয়ারম্যান হারুন-অর রশিদ গ্রুপের সাথে বর্তমান চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান গ্রুপের দ্বন্দ্ব চলছিলো। এ ঘটনার সূত্র ধরে শনিবার রাত ৯টার দিকে এক দল দুর্বৃত্তরা সাবেক চেয়ারম্যানের চাচাতো ভাই আ: মতিন (৫৫) ও আপন ভাই জুয়েল রানা (৩৫) এর ওপর হামলা করে। এসময় দুর্বৃত্তরা মতিনকে দেশিও অস্ত্রসস্ত্র দিয়ে এলোপাথারি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়। মতিন উপজেলার ছোট পুটিপাড়া গ্রামের মৃত মহির উদ্দীনের ছেলে। সেখানে থাকা জুয়েল রানা দৌড়ে পালিয়ে আত্মরক্ষা করে।

সাঁথিয়া উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে চিকিৎসাধিন থাকা জুয়েল রানা জানান, শনিবার সন্ধ্যায় মতিন ভাইয়ের সাথে আমি পৌর সভার ফেঁচুয়ান গ্রামে দাওয়াত খেতে যাই। বাড়ি ফেরার পথে ছোট পুটিপাড়া নদীর ডাইকে এলে পূর্ব থেকে ওৎ পেতে থাকা দুর্বৃত্তরা আমার উপর হামলা চালায়।

এসময় চাচাতো ভাই মতিন আমাকে বাঁচাতে এলে তাকে উপর্যুপরি ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করে। আমি আত্মরক্ষায় দৌঁড়িয়ে ইছামতি নদীতে ঝাঁপ দিয়ে প্রাণে বাঁচি। পরে স্থানীয়রা আমাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করে। এ বিষয়ে সাবেক চেয়ারম্যান বাদী হয়ে ১৮জন নামীয়সহ অজ্ঞাতনামা আসামীদের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন বলে জানা গেছে।

রবিবার (৬ জুন) সকালে সরেজমিনে নিহত মতিনের বাড়িতে গেলে তার স্ত্রী চার সন্তানের জননী জানান, আমার স্বামীকে চেয়ারম্যান হাফিজের লোকজন হত্যা করেছে। আমি স্বামী হত্যার সুষ্ঠু বিচার চাই।
এদিকে হত্যার পর থেকেই থমথমে অবস্থা বিরাজ করছে। লুটপাট ও হামলার আশংকায় গ্রামটির মোড়ে মোড়ে পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

এ বিষয়ে নাগডেমরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান হাফিজুর রহমান হাফিজ বলেন, রাজনৈতিক প্রতিহিংসার জন্য আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে প্রতিপক্ষ। আমি চেয়ারম্যান হিসেবে এ হত্যার সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে বিচার চাই।

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি তদন্ত) কমল কুমার দেবনাথ জানান, লাশ উদ্ধার করে পাবনা মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। একজনকে আটক করা হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় মামলা হয়েছে।

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!