রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ০৯:৫৮ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পাবনায় ব্যবসায়ীকে গুলি করে টাকা ছিনতাইয়ের চেষ্টা একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক তোয়াব খানের মৃত্যুতে পাবনা প্রেসক্লাবের শোক পাবনার হেমায়েতপুর ও মালিগাছায় আওয়ামীলীগের মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত শ্রদ্ধা ভালোবাসায় সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন পাবনায় শারদীয় দুর্গোৎসব উপেলক্ষ্যে মর্জিনা লতিফ ট্রাস্টের বস্ত্র বিতরণ একুশে পদকপ্রাপ্ত সাংবাদিক রণেশ মৈত্রের শেষকৃত্য সম্পন্ন পাবনায় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ইসলামী আন্দোলনের নেতার ঈশ্বরদীতে গৃহবধূকে ছুরিকাঘাতে হত্যা রূপপুর পারমাণবিক বিদ্যুৎ প্রকল্পে আবারও ডেঙ্গু আক্রান্ত শ্রমিকের মৃত্যু ফরিদপুরে মন্দিরের জায়গা দখল করে মেয়রের কোটি টাকার বাণিজ্য মেলা!

ভাঙ্গুড়ায় অল্পের জন্য সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পেল দু’টি ট্রেন!

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত শনিবার, ১৪ মে, ২০২২
Pabnamail24

অল্পের জন্য মুখোমুখি সংঘর্ষের হাত থেকে রক্ষা পেল যাত্রীবাহী দু’টি ট্রেন। যদিও এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি। তবে ঘটতে পারত বড় ধরনের দুর্ঘটনা। শুক্রবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ঈশ্বরদী-ঢাকা রেলপথে পাবনার ভাঙ্গুড়া উপজেলার বড়ালব্রিজ রেলস্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।
ট্রেন দু’টি হচ্ছে আন্তনগর ধূমকেতু ও দ্রুতযান এক্সপ্রেস। পরে আধা ঘণ্টা বিলম্বে ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায় ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি। তবে এ ঘটনা অস্বীকার করেছে স্টেশন কর্তৃপক্ষ।

ট্রেনযাত্রী ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, রাত ১টার দিকে ঢাকা থেকে পঞ্চগড়গামী আন্তনগর দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেনটি বড়ালব্রিজ স্টেশন সংলগ্ন রেলব্রিজ অতিক্রম করছিল। এ সময় বিপরীত দিক থেকে একই লাইনে ছুটে আসছিল রাজশাহী থেকে ঢাকাগামী আন্তনগর ধূমকেতু ট্রেন। অবস্থা বেগতিক দেখে দ্রুতযানের চালক ট্রেনটি রেলব্রিজের ওপর দ্রুত থামিয়ে দেন। এ সময় ধূমকেতু ট্রেনটি ছিল ওই রেলব্রিজের পশ্চিম পাশের কয়েকশ’ গজ দূরে। চালকদের সতর্কতায় মুখোমুখি সংঘর্ষ থেকে রক্ষা পায় ট্রেন দু’টি।

এ ঘটনায় উভয় ট্রেনের যাত্রীদের মাঝে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে ধূমকেতু ট্রেনটি পাশের ভাঙ্গুড়া স্টেশনে ফিরে গিয়ে এক নম্বর লাইনে অবস্থান নিলে দ্রুতযান ট্রেনটি দুই নম্বর লাইন দিয়ে ছেড়ে যায়। এতে আধা ঘণ্টা বিলম্বে ধূমকেতু ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী ধূমকেতু ট্রেনের যাত্রী রাকিবুল ইসলাম জানান, তিনি ধূমকেতু ট্রেনের অপেক্ষায় বড়ালব্রিজ স্টেশনে দাঁড়িয়েছিলেন। রাত ১টার দিকে আন্তনগর দ্রুতযান এক্সপ্রেস ট্রেন ও ধূমকেতু ট্রেন দু’টি একই লাইনে মুখোমুখি হয়। এ সময় দ্রুতযানের চালক বড়ালব্রিজের ওপর ট্রেন থামিয়ে দেয় এবং ধূমকেতু ট্রেনটি পেছনের দিকে গিয়ে ভাঙ্গুড়া স্টেশনে দাঁড়ায়।

বড়ালব্রিজ স্টেশন মাস্টার মামুন হোসেন জানান, ভাঙ্গুড়া ষ্টেশন থেকে সিগন্যাল দেয়া হয়। বিষয়টি তারাই ভালো বলতে পারবেন। আমি এ বিষয়ে কিছুই জানি না।

এ বিষয়ে ভাঙ্গুড়া স্টেশন মাস্টার হাবিবুর রহমান বলেন, কম্পিউটার সিগন্যাল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ধূমকেতু এক্সপ্রেস ট্রেনটি স্টেশনে আটকে থাকে। ২০ মিনিট পর কম্পিউটার চালু করা গেলে ট্রেনটি ঢাকার উদ্দেশে ছেড়ে যায়।

তবে দুটি ট্রেন মুখোমুখি এ ঘটনা অস্বীকার করে তিনি আরও বলেন, যদি এমন কিছু ঘটত তাহলে কর্তৃপক্ষ কী আমাকে এখনও এখানে রাখতেন?

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!