শনিবার, ২১ মে ২০২২, ১২:১৪ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় সুজানগরে ছাত্রীকে পিটিয়ে জখম, সহপাঠিদের প্রতিবাদ সুজানগরে সরকারি কালভার্ট ভেঙে নির্মাণ সামগ্রী লুট, তদন্ত কমিটি এমপি পুত্রের স্লিপ অব টাং! হাসপাতোলে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় রোগীকে হুমকির অভিযোগ পামেক ছাত্রলীগ সম্পাদকের বিরুদ্ধে জনশুমারি, পাবনায় আগামী ১৫ থেকে ২১ জুন অনুষ্ঠিত হবে রাধানগর অবৈধ ভাবে ভোজ্য তেল মজুদ, জরিমানা আদায় বেড়া-সাঁথিযায় আধা পাকা ধান নিয়ে কৃষকের যুদ্ধ,পানিতে নষ্ট হচ্ছে পাট বেড়ার চরে গো-খামারে ভাগ্যবদল রেলমন্ত্রীর আত্মীয় কান্ডে তদন্তে টিটিই শফিকুল নির্দোষ প্রমাণিত সাঁথিয়ায় মৃত গরুর মাংশ বিক্রয় করায় কসাইকে ১বছরের কারাদন্ড

বেড়ায় ভোক্তা অধিদপ্তরের ভূয়া কর্মকর্তা আটক

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত রবিবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

পাবনার বেড়া পৌর এলাকায় জাতীয় ভোক্তা ও অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তা পরিচয়ে বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠান থেকে জরিমানা আদায় করতে গিয়ে তিন প্রতারক আটক হয়েছে। রোববার (১২ ডিসেম্বর) বিকেলে বেড়া বাজারের শাপলা-শালুক নামের একটি অভিজাত রেস্টুরেন্ট থেকে তাঁদের আটক করা হয়।

বেড়া থানা পুলিশ ও ভূক্তভোগী দোকান মালিকদের সূত্রে জানা যায়, রোববার সকাল ১১টার দিকে আবির হোসেন (২৯) নামের এক ব্যক্তি নিজেকে জাতীয় ভোক্তা ও অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের রাজশাহী বিভাগীয় কার্যালয়ের উপ-পরিচালক পরিচয় দিয়ে দুই সঙ্গীসহ বেড়া থানায় উপস্থিত হন। তাঁরা বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকারের কাছে দেখা করে বাজার মনিটরিং করার জন্য পুলিশ রিক্যুইজিশন চেয়ে লিখিত আবেদন করেন।

এতে থানা থেকে চারজন পুলিশ দেওয়া হলে পুলিশ সঙ্গে নিয়ে বেড়া বাজারের বিভিন্ন দোকানে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণের নামে অভিযান চালাতে থাকেন। এ সময় তাঁরা গোধুলি স্ইুটস এন্ড চাইনিজ রেস্টুরেন্ট থেকে ৩৫ হাজার টাকা ও শাপলা-শালুক রেস্টুরেন্ট থেকে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করেন।

এ ছাড়া অন্যান্য দোকানেও জরিমানা আদায়ের চেষ্টা করতে থাকেন। কিন্তু তাঁদের এ কর্মকান্ড নিয়ে ব্যবসায়ীদের সন্দেহ হলে তাঁরা বিষয়টি স্থানীয় সাংবাদিক ও বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে জানান।

খবর পেয়ে সাংবাদিকেরা ও বেড়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা তাঁদেরকে শাপলা-শালুক রেস্টুরেন্টে গিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেন। এ সময় জাতীয় ভোক্তা ও অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের পাবনা কার্যালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে কথা বলে ওই ব্যক্তিদের পরিচয় ভূয়া বলে নিশ্চিত হওয়া যায়। এতে ওই স্থান থেকে নিজেকে জাতীয় ভোক্তা ও অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক ও ৩৮তম বিসিএসের কর্মকর্তা পরিচয় দেওয়া আবির হোসেন মিম (২৯), অফিস সহকারী বলে পরিচয় দেওয়া মেহেদী হাসান সেতু (২৭) ও আজিজুল হকসহ (২৫) মোট তিনজনকে আটক করে পুলিশ থানায় নিয়ে যায়।

বেড়া মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) অরবিন্দ সরকার বলেন, ‘পুলিশ রিক্যুইজিশন চেয়ে আবেদন করায় আমি প্রথমে পুলিশ দিলেও বিষয়টি সম্পর্কে খোঁজ-খবর নিতে থাকি। পরে সন্দেহ হলে আমি নিজে গিয়ে ওদেরকে আটক করে থানায় নিয়ে আসি।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!