বৃহস্পতিবার, ১৯ মে ২০২২, ০৮:৩৮ পূর্বাহ্ন

ঢালারচরে বিতর্কিত ও চাল চুরির অপরাধসহ নানা অপকর্মে নৌকার মাঝি পরিবর্তন

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত শুক্রবার, ৩ ডিসেম্বর, ২০২১
Pabnamail24

চাল চুরির অপরাধে গ্রেফতার হওয়া পাবনার ঢালারচর ইউনিয়ন পরিষদের সেই চেয়ারম্যান ও ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি কোরবান আলীর স্থলে নৌকার মনোনয়ন পেলেন মমিনুর রহমান মমিন। বিষয়টি আমিনপুর থানায় টক অব দ্যা টাউনে পরিনত হয়েছে। ২২৯ বস্তা ভিজিডির চালসহ র‌্যাবের হাতে গ্রেপ্তার হওয়া সেই চেয়ারম্যান কোরবান আলী আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন বঞ্চিত হওয়ায় এলাকায় স্বস্তির বাতাস বইতে শুরু করেছে বলে দাবী তৃণমূল আওয়ামীলীগ নেতাকর্মীদের মাঝে।

স্থানীয়রা জানান, ভূগোল ও পরিবেশ বিদ্যায় সম্মান সম্পন্ন করা মমিনুর রহমান মমিন ছোট বেলা থেকেই রাজনীতির সাথে জড়িত ইউনিয়ন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক। ছাত্র জীবনে রাজবাড়ি সরকারী কলেজ ছাত্রলীগের এই নেতা আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাওয়ায় এলাকায় স্বস্তি বিরাজ করছে বলেও জানান ঢালারচর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক নাসির উদ্দিন ব্যাপারী।

তিনি আরো জানান, আমি নিজেও দলীয় মনোনয়নের জন্য দলের নিকট আবেদন করেছিলাম। কিন্ত দল মমিনকে মনোনয়ন দেওয়ায় সব ভেদাভেদ ভুলে দলের পক্ষে কাজ করবেন বলেও তিনি নিশ্চয়তা দেন।
সদ্য ঢালারচর ইউনিয়নে দলীয় মনোনয়ন পাওয়া মমিন ২০০১ সালে নির্বাচন পরবর্তী বিএনপি জামায়াত সরকারের নানা রকম দমন পীড়নের শিকার হন। এছাড়াও তিনি বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন আন্দোলন সংগ্রামে অগ্রনী ভূমিকা পালন করা সত্বেও স্থায়ী ভাবে ঢালারচরে বসবাস করতেন।

ইতিপূর্বেও চেয়ারম্যান কোরবান আলী ঢালারচর ইউনিয়নের চেয়ারম্যঅন হলেও তিনি সেখানে বসবাস করতেন না। এমনকি তার বোর্ডঘর ছিল মাসুমদিয়া ইউনিয়নে। ২০২০ সালের ৬ মে দিবাগত রাতে গোপন সূত্রে খবর পেয়ে র‌্যাবের একটি একটি দল মাসুমদিয়া ইউনিয়নের বাঁধেরহাটে চেয়ারম্যানের একটি গুদামে অভিযান চালায়। সেখানে ২২৯ বস্তা ভিজিডির চাল পায়। এ সময় র‌্যাব কোরবান আলীকে আটক এবং চাল জব্দ করে। পরে রাত সাড়ে ১১টার দিকে চালসহ তাঁকে আমিনপুর থানায় সোপর্দ করা হয়।

ঢালারচর ইউপি কার্যালয় থাকা সত্ত্বেও সরকারি চাল সেখানে না রেখে ইউপি চেয়ারম্যান তাঁর নিজ গুদামে এনে রেখেছেন। গুদামটি অপর একটি ইউনিয়নে অবস্থিত। এ বিষয়টি সরকারি বিধির পুরোপুরি লঙ্ঘন। এ জন্য চেয়ারম্যান কোরবান আলীকে চালসহ আটক করে থানায় সোপর্দ করা হয়েছিল বলেও জানিয়েছিলেন র‌্যাব-১২ পাবনা ক্যাম্পের তৎকালীন কমান্ডার আমিনুল কবির তরফদার।

এলাকাবাসী জানায়, নিরাপত্তার অজুহাত দেখিয়ে নির্বাচিত হওয়ার পর চেয়ারম্যান কোরবান আলী সেখানে বাস না করে ইউনিয়নের বাইরে বাস করেন। অথচ ঢালারচর ইউপি কার্যালয়ে রয়েছে চমৎকার একটি ভবন। কোরবান আলী ইউপি কার্যালয় থেকে প্রায় ১০ কিলোমিটার দূরে মাসুমদিয়া ইউনিয়নের বাঁধেরহাট এলাকায় ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অস্থায়ী কার্যালয় বসিয়ে ইউনিয়ন পরিষদের কর্মকান্ড চালিয়ে আসতেন। এভাবে কর্মকান্ড পরিচালনা করায় ইউনিয়নবাসীকে দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে।

তারই ধারাবাহিকতায় আসন্ন ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের নীতিনির্ধারণী বৈঠকে পূর্বের ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান কোরবান আলীকে দলীয় মনোনয়ণ না দিয়ে মমিনুর রহমান মমিনকে মনোনয়ন দিয়েছেন বলেও দাবী স্থানীয়দের।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!