শনিবার, ২১ মে ২০২২, ১২:১৯ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় সুজানগরে ছাত্রীকে পিটিয়ে জখম, সহপাঠিদের প্রতিবাদ সুজানগরে সরকারি কালভার্ট ভেঙে নির্মাণ সামগ্রী লুট, তদন্ত কমিটি এমপি পুত্রের স্লিপ অব টাং! হাসপাতোলে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় রোগীকে হুমকির অভিযোগ পামেক ছাত্রলীগ সম্পাদকের বিরুদ্ধে জনশুমারি, পাবনায় আগামী ১৫ থেকে ২১ জুন অনুষ্ঠিত হবে রাধানগর অবৈধ ভাবে ভোজ্য তেল মজুদ, জরিমানা আদায় বেড়া-সাঁথিযায় আধা পাকা ধান নিয়ে কৃষকের যুদ্ধ,পানিতে নষ্ট হচ্ছে পাট বেড়ার চরে গো-খামারে ভাগ্যবদল রেলমন্ত্রীর আত্মীয় কান্ডে তদন্তে টিটিই শফিকুল নির্দোষ প্রমাণিত সাঁথিয়ায় মৃত গরুর মাংশ বিক্রয় করায় কসাইকে ১বছরের কারাদন্ড

সুজানগরে পৌর কর্মচারী হত্যা মামলায় সাবেক মেয়র, যুবলীগ নেতা সহ ৪ অভিযুক্ত জেল হাজতে

পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডেস্ক
  • প্রকাশিত বুধবার, ১৬ মার্চ, ২০২২
Pabnamail24

পাবনার সুজানগর পৌরসভার টিকাদানকর্মী আল আমিন হত্যার ঘটনায় পৌরসভার সাবেক মেয়র ও আওয়ামীলীগ নেতা তোফাজ্জল হোসেন তোফা, তার ভাই যুবলীগ নেতা জুয়েলসহ ৩৩ জনকে আসামি করে মামলা করেছে নিহতের পরিবার। এ ঘটনায় সাবেক মেয়র তোফা, তার ভাই পৌর যুবলীগ সভাপতি মো. জুয়েল, তাদের সমর্থক গৌর ও লিটনকে অস্ত্রসহ গ্রেপ্তারের পর বুধবার আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠিয়েছে পুলিশ।
এর আগে, গত সোমবার আদালত থেকে ফেরার পথে সুজানগরে আল আমিন ও তার ভাই রজব আলীর উপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনা ঘটে।
এ ঘটনায় সুজানগর পৌরসভার টিকাকর্মী আল আমিন (২৭) নিহত হন এবং তার ভাই রজব আলীকে গুরুত্বর আহত অবস্থায় রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।
আতাইকুলা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. জালাল উদ্দিনকে বলেন, ‘নিহতের ভাই লাল্টু প্রামাণিক বাদী হয়ে মঙ্গলবার রাতে আতাইকুলা থানায় সাবেক মেয়র তোফাজ্জল হোসেন তোফা, তার ভাই জুয়েলসহ ৩৩ জনের নাম উল্লেখ করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন। পূর্ব শত্রুতার জের ধরে তারা এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছেন বলে মামলার এজাহারে বলা হয়েছে।
এ ঘটনার পর গোয়েন্দা পুলিশ অস্ত্রসহ সাবেক মেয়র তোফা, তার ভাই জুয়েলসহ ৪ জনকে আটক করে। পরে মঙ্গলবার রাতে মামলা দায়েরের পর হত্যা মামলায় তাদের গ্রেফতার দেখানো হয়। বুধবার আদালতের মাধ্যমে তাদের জেলহাজতে পাঠানো হয়।
সুজানগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আব্দুল হান্নান বলেন, ‘গ্রেপ্তারকৃতদের কাছ থেকে একটি লাইসেন্স করা বন্দুক ও অবৈধভাবে রাখা টু টু বোর রাইফেল উদ্ধার করা হয়েছে। এ ঘটনায় গ্রেপ্তারকৃতদের বিরুদ্ধে অস্ত্র আইনে সুজানগর থানায় একটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।’
এদিকে, সহকর্মী হত্যার প্রতিবাদে সুজানগর পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীরা বুধবার সকালে পৌরসভা থেকে একটি বিক্ষোভ মিছিল বের করে সুজানগর শহর প্রদক্ষিণ করেন। পরে তারা একটি মানববন্ধনও করেন। আল আমিনকে নৃশংসভাবে হত্যার ঘটনায় হত্যাকারী সবার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে পৌরসভার কর্মীদের এই আন্দোলন চলবে বলেও জানান তারা। এ সময় সুজানগর পৌরসভার মেয়র রেজাউল করিম রেজা, নির্বাহী প্রকৌশলী নুর নবী সরকারসহ পৌরসভার কর্মকর্তা কর্মচারীরা বক্তব্য রাখেন।

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!