বুধবার, ৩০ নভেম্বর ২০২২, ০৪:৪৭ অপরাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
মা ও ছেলের একই সাথে এসএসসি পাশ, এলাকায় আনন্দ পাবনায় কিন্ডারগার্টেন এসোসিয়েশনের বৃত্তি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত শহীদ শেখ রাসেলের স্মৃতি ধারণ করে শোককে শক্তিতে পরিণত করতে হবে পাবিপ্রবি ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগে স্পোর্টস সপ্তাহ উদ্বোধন বিআরডিবি অফিসার্স এসোসিয়েশন নির্বাচনে সর্বোচ্চ ভোটে ফারুক সদস্য নির্বাচিত নন্দর গলিতে রাস্তা দখল করে পাকা স্থাপনা, জনদূর্ভোগ চরমে পাবনায় হিজড়দের প্রশিক্ষণ সনদ বিতরণ পাবনায় আগ্নেয়াস্ত্রসহ মূসা হত্যাকান্ডে জড়িত ৫ চরমপন্থি গ্রেফতার স্কয়ারমাতা খ্যাত অনিতা চৌধুরীর মৃত্যুতে গোলাম ফারুক প্রিন্স এমপির শোকবার্তা স্যামসন এইচ চৌধুরীর সহধর্মিণী অনিতা চৌধুরীর মৃত্যুতে ডেপুটি স্পীকারের শোক

পাবনায় ভাইয়ের দায়ের কোপে প্রাণ গেল ইসলামী আন্দোলনের নেতার

নিজস্ব প্রতিনিধি, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত শুক্রবার, ৩০ সেপ্টেম্বর, ২০২২
Pabnamail24

জমিজমা সংক্রান্ত বিরোধের জেরে পাবনা সদর উপজেলার ভাড়ারায় চাচাতো ভাইয়ের দায়ের কোপে নিহত হয়েছেন ব্যবসায়ী শরিফুল ইসলাম (৩০)। শুক্রবার সকালে উপজেলার ভাড়ারা গ্রামের শাহী মসজিদের পাশে এই ঘটনা ঘটে।
নিহত শরিফুল ওই গ্রামের আব্দুস সামাদ সরদারের ছেলে। তিনি ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ভাড়ারা ইউনিয়ন শাখার সাধারণ সম্পাদক ও কসমেটিক্স ব্যবসা করতেন।

অভিযুক্ত চাচাতো ভাই শাহীন হোসেন ও স্বপন হোসেন একই গ্রামের মৃত মজনু সরদারের ছেলে। ঘটনার পর থেকে তারা পলাতক রয়েছেন।

নিহতের স্বজন ও স্থানীয়দের বরাত দিয়ে পাবনার অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম বলেন, বাড়ির পাশে একটি জমি নিয়ে শরিফুলের সাথে তার চাচাতো ভাই স্বপন ও শাহীনের বিরোধ চলছিল। শুক্রবার সকালে বিরোধপূর্ন জমিতে থাকা বাঁশ ঝাড়ে বাঁশ কাটতে যান শরিফুলের বাবা সামাদ সরদার। এ সময় স্বপন ও শাহীন তাকে বাধা দেন। এরই এক পর্যায়ে কাটাকাটির শুরু হলে স্বপন ও শাহীন দা ও ধারালো চাকু দিয়ে শরিফুলকে এলোপাথারী ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায়। পরিবারের লোকজন দ্রুত তাকে প্রথমে পাবনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করে। সেখানে অবস্থার অবনতি হলে রাজশাহী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেবার পথে শরিফুলের মৃত্যু হয়।

অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মাসুদ আলম আরও জানান, খবর পেয়ে পুলিশ মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য আড়াইশ শয্যা বিশিষ্ট পাবনা জেনারেল হাসপাতাল মর্গে পাঠায়। এলাকায় অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। অভিযুক্তরা পলাতক রয়েছে, তাদের ধরতে ইতিমধ্যে কাজ শুরু করেছে পুলিশ।

সদর উপজেলার ভাড়ারা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সুলতান মাহমুদ খান বলেন, দুই পরিবারের মধ্যে জমি দিয়ে অনেক আগে থেকেই বিরোধ চলে আসছে। এর আগে তারা সমাধানের জন্য পরিষদে এসেছিলেন। কিন্তু আদালতে মামলা চলমান থাকায় তাদের মধ্যে মিমাংসা করে দেয়া সম্ভব হয়নি।

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!