রবিবার, ২২ মে ২০২২, ০৭:৩৭ পূর্বাহ্ন
ব্রেকিং নিউজ
পাবনা প্রেসক্লাবে সাংবাদিক আ জ ম আব্দুল আওয়ান খান স্মরণসভা বৈশাখী ঝড়ে স্কুলের দ্বিতল ভবনের টিনের ছাদ ক্ষতিগ্রস্থ, ব্যাহত শিক্ষা কার্যক্রম সাঁথিয়ায় ২য় দিনেও ক্লাস বর্জন, বিচারের দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ আমিনপুর থানা আওয়ামীলীগের প্রথম সভাপতি ইউসুফ আলী খান, সম্পাদক রেজাউল হক বাবু কুঁজো মানুষের চিৎ হয়ে শোয়ার স্বপ্ন-আব্দুর রহমান জাতীয় সরকার প্রস্তাব, কুঁজো মানুষের চিৎ হয়ে শোয়ার স্বপ্ন —- আওয়ামীলীগ সভাপতি মন্ডলীর সদস্য আব্দুর রহমান প্রেমের প্রস্তাব প্রত্যাখান করায় সুজানগরে ছাত্রীকে পিটিয়ে জখম, সহপাঠিদের প্রতিবাদ সুজানগরে সরকারি কালভার্ট ভেঙে নির্মাণ সামগ্রী লুট, তদন্ত কমিটি এমপি পুত্রের স্লিপ অব টাং! হাসপাতোলে অনিয়মের প্রতিবাদ করায় রোগীকে হুমকির অভিযোগ পামেক ছাত্রলীগ সম্পাদকের বিরুদ্ধে

দূর্নীতিবাজ আখ্যা দিয়ে প্রক্টরের পদত্যাগ দাবিতে শিক্ষার্থীদের বিক্ষোভ পাবিপ্রবিতে

নিজস্ব প্রতিবেদক, পাবনামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম
  • প্রকাশিত সোমবার, ৭ মার্চ, ২০২২
Pabnamail24

পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ^বিদ্যালয়ের বিদায়ী উপাচার্য এম. রোস্তম আলীর অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিবাদে শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের রেশ কাটতে না কাটতেই এবার প্রক্টর হাসিবুর রহমানের পদত্যাগ দাবিতে বিক্ষুব্ধ হয়ে উঠেছে শিক্ষার্থীরা। সোমবার দুপুরে পাবিপ্রবির প্রক্টর অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ করে তারা। এ সময় তারা প্রক্টর হাসিবুর রহমানকে দুর্নীতিবাজ, অদক্ষ ও ব্যর্থ অভিহিত করে পদত্যাগ দাবিতে শ্লোগান দেয়।

বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীরা জানায়, প্রক্টর হাসিবুর রহমান বিশ^বিদ্যালয়ের বিদায়ী বিতর্কিত উপাচার্য এম. রোস্তম আলীর সকল দূর্নীতি ও নিয়োগ বাণিজ্যের প্রধান সহযোগী। নীতি নৈতিকতার তোয়াক্কা না করে তিনি বিশ^বিদ্যালয়ের লুটপাটের রাজত্ব কায়েম করেছেন। ক্রয় সংক্রান্ত দূর্ণীতি ছাড়াও, নিজে উপস্থিত থেকে বিশ^বিদ্যালয় লেকের মাছ লুট করেছেন। কিন্তু শিক্ষার্থীদের নিরপত্তা, খাবারের মান বৃদ্ধিসহ বিভিন্ন দাবির বিষয়ে ব্যবস্থা নেননি। শিক্ষার্থীরা প্রক্টরের পদত্যাগের পাশাপাশি অনিয়ম, দুর্ণীতির তদন্ত ও বিচার দাবী করেন।

বিশ^বিদ্যায়ের সাবেক শিক্ষার্থী খায়রুল ইসলাম বলেন, সম্প্রতি বিশ^বিদ্যালয়ে চাকুরির আবেদন করার পর চারটি পদে লিখিত পরীক্ষায় নির্বাচিত হই। কিন্তু, মৌখিক পরীক্ষায় ভালো করার পরেও আমার চাকরি না হওয়ায়, উপাচার্য স্যারের কাছে কারণ জানতে চেয়েছিলাম। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে প্রক্টর হাসিবুর রহমান আমাকে ভয়ভীতি দেখিয়েছেন।

বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থী সাইফুল, প্রান্ত, নাবিলা, জাহান জানায়, বিদায়ী উপাচার্যের তোষামোদী ও দুর্নীতিতে সহযোগীতার পুরস্কার হিসেবে তিনি প্রক্টর পদে নিয়োগ পান। তিনি উপাচার্যের অপকর্মের নিরপত্তা দেয়া আর উন্নয়ন প্রকল্পে কমিশন বাণিজ্য ছাড়া গত এক বছরে কিছুই করেননি। বিশ^বিদ্যালয়ে বহিরাগতরা হলে ঢুকে চুুরি, ছিনতাই, শিক্ষার্থীদের লাঞ্ছিত করেছে, মাদক ব্যবসায়ীদের আনাগোনা বেড়েছে।

এসব নিয়ে প্রক্টরকে বার বার অভিযোগ দিলেও ব্যবস্থা নেননি। বরং অভিযোগকারী শিক্ষার্থীদেরকেই উল্টো পুলিশে দেয়া, বিশ^বিদ্যালয় থেকে বহিষ্কারের ভয় দেখিয়েছেন। আমরা এই বিতর্কিত, ব্যর্থ প্রক্টরের পদত্যাগ চাই।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে পাবিপ্রবি প্রক্টর হাসিবুর রহমান বলেন, বিশ^বিদ্যালয় প্রশাসন বর্তমানে অভিভাবকহীন। ভিসি, প্রোভিসি ও কোষাধ্যক্ষসহ গুরুত্বপূর্ণ সকল পদই শূণ্য । এই সুযোগে একটি চক্র বিশ^বিদ্যালয়কে অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করছে। আমার বিরুদ্ধে অভিযোগ সত্য নয়। ছাত্রদের ব্যবহার করে কতিপয় শিক্ষক নিজেদেও ফায়দা লুটতে চাইছেন।

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

শেয়ার করুন

বিভাগের আরো খবর

Leave a Reply

Your email address will not be published.

error: Content is protected !!